Uncategorized

বিনিয়োগকারীদের চাহিদার শীর্ষে ন্যাশনাল টিউবস

গত সপ্তাহজুড়ে পুঁজিবাজারের বিনিয়োগকারীদের কাছে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে চাহিদার শীর্ষে ছিল ন্যাশনাল টিউবস। ফলে সপ্তাহজুড়ে প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) এই কোম্পানিটির শেয়ার দামে বড় ধরনের উত্থান ঘটেছে।

মূল্যে বড় ধরনের উত্থানের কারণে বিনিয়োগকারীদের একটি অংশ কোম্পানিটির শেয়ার বিক্রি করে দেন। ফলে সপ্তাহজুড়ে লেনদেন হয়েছে ১০১ কোটি ৭ লাখ টাকা। আর প্রতি কার্যদিবসে গড়ে লেনদেন হয়েছে ২৫ কোটি ৪৩ লাখ টাকা। এর মাধ্যমে কোম্পানিটি লেনদেনের শীর্ষ স্থানটিও দখল করেছে।

এদিকে শেয়ারের দাম সপ্তাহজুড়ে বেড়েছে ৩০ দশমিক ৮৭ শতাংশ। টাকার অঙ্কে বেড়েছে ৩৯ টাকা ৬০ পয়সা। সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস শেষে কোম্পানিটির শেয়ার দাম দাঁড়িয়েছে ১৬৭ টাকা ৯০ পয়সা, যা আগের সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ছিল ১২৮ টাকা ৩০ পয়সা।

ডিএসইর তথ্য অনুযায়ী, ৩১ কোটি ৬৫ লাখ ৬০ হাজার টাকা পরিশোধিত মূলধনের এই কোম্পানিটির শেয়ার সংখ্যা ৩ কোটি ১৬ লাখ ৫৬ হাজার ১৮৫টি। এর মধ্যে ৫১ শতাংশ শেয়ার রয়েছে সরকারের হাতে। উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের হাতে আছে দশমিক শূন্য ৫ শতাংশ শেয়ার। বাকি শেয়ারের মধ্যে ২৮ দশমিক ৮১ শতাংশই আছে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে। আর প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে আছে ২০ দশমিক ১৪ শতাংশ।

ন্যাশনাল টিউবসের পরেই গত সপ্তাহে বিনিয়োগকারীদের আগ্রহে ছিল ‘জেড’ গ্রুপের প্রতিষ্ঠান খুলনা প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিং। সপ্তাহজুড়ে এই কোম্পানিটির শেয়ার দাম বেড়েছে ২৩ দশমিক ৯৭ শতাংশ। এর পরেই রয়েছে উসমানিয়া গ্লাস শিট ফ্যাকটরি। সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটির শেয়ার দাম বেড়েছে ১৬ দশমিক ৬১ শতাংশ।

এছাড়া গত সপ্তাহে দাম বাড়ার শীর্ষ ১০ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় থাকা- জেমিনি সি ফুডের ১৫ দশমিক ৪১ শতাংশ, অ্যাটলাস বাংলাদেশের ১১ দশমিক ৪৮ শতাংশ, মুন্নু জুট স্টাফলার্সের ১০ দশমিক ৭১ শতাংশ, বিকন ফার্মাসিউটিক্যালের ৯ দশমিক ৫৪ শতাংশ, স্ট্যান্ডার্ড সিরামিকের ৮ দশমিক ৫৫ শতাংশ, ওয়াটা কেমিক্যালের ৮ দশমিক ১৯ শতাংশ এবং শেফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজের ৭ দশমিক ৯৮ শতাংশ দাম বেড়েছে।

Comments

comments

Related Articles