নওগাঁয় বিষাক্ত গ্যাসবড়ি খেয়ে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যা

0
12

মোঃ সুইট হোসেন, নওগাঁ জেলা প্রতিনিধিঃ নওগাঁয় পরিবরের লোকজনের উপর অভিমান করে বিষাক্ত গ্যাসবড়ি খেয়ে এক স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যার খবর পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার দিনগত রাতে নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার বিলশিকারী গ্রামে। খবর পেয়ে মহাদেবপুর থানা পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার পূর্বক মঙ্গলবার ২৮ জুন নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেন।

স্থানীয় সূত্র জানায়, উপজেলার হাতুড় ইউনিয়নের বিলশিকারী গ্রামের গোপাল মহন্তের মেয়ে ও বিলশিকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া ছাত্রী কোহেলী মহন্ত (১৪) সাথে একই গ্রামের সুদর্শন চন্দ্র মহন্তের ছেলে রকি মহন্ত (১৭) এর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। অন্যান্য দিনের মত সোমবারও কোহেলী মহন্ত স্কুলে গিয়ে কৌশলে স্কুল থেকে বের হয়ে প্রেমিক রকি মহন্তের সাথে যায়।

ঘটনাটি জানাজানি হলে, ছাত্রী কোহেলীর মা স্কুলে গিয়ে তার মেয়ে কোথায় জানতে চেয়ে শিক্ষকদের সাথে বাকবিতন্ডা করেন। পরে স্কুল ছুটির আগেই কোহেলী মহন্ত স্কুলে ফিরে আসলে শিক্ষকরা তাকে বকাঝকা করেন। বিকালে কোহেলী বাড়ি ফিরলে তার মা ও পরিবারের লোকজন তাকে শাসন করেন।

এ ঘটনায় রাগ ও অভিমানে ওইদিনই রাতে পরিবারের লোকজনের অজান্তে কোহেলী বিষাক্ত গ্যাসবড়ি খেয়ে আত্নহত্যার চেষ্টা করে। পরিবারের লোকজন বিষয়টি জানতে পেরে গুরুতর অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে মহাদেবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। সেখানে অবস্থার অবনতি হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার সময় পথিমধ্যে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনার পর থেকে প্রেমিক রকি মহন্ত পলাতক রয়েছে।

মৃতদেহ উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করে মহাদেবপুর থানার ওসি আজম উদ্দিন মাহমুদ জানান, স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যার ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। নিহতের মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।