আন্তর্জাতিক

করোনা ভ্যাকসিনের ৩০ কোটি ডোজ কিনতে সম্মত ইইউ

  • 91
    Shares

ইউরোপের চার দেশ জার্মানী, ফ্রান্স, ইতালি ও নেদারল্যান্ডস করোনা ভাইরাসের সম্ভাব্য ভ্যাকসিনের ৩০ কোটি ডোজ কিনতে সম্মত হয়েছে। এ লক্ষ্যে ওষুধ কোম্পানি ‘অস্ট্রাজেনেকা’ এর সঙ্গে চুক্তি করেছে ইইউ। শনিবার জার্মান সরকারের এক ঘোষণায় এ তথ্য জানা যায়।

সুইডিশ কোম্পানী অস্ট্রা ও ব্রিটিশ কোম্পানী জেনেকা মিলে ১৯৯৯ সালে ‘অস্ট্রাজেনেকা’ গ্রুপ গঠন করে। এই গ্রুপের সঙ্গে ইউরোপের চার দেশ যে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেছে তাতে বলা হয়েছে, কোম্পানীটি টিকা আবিষ্কারের পরপরই ইউরোপের এই দেশগুলো তা সরবরাহ করবে। আগাম ভ্যাকসিন কেনার পক্ষে শুক্রবার সায় দিয়েছে ইউরোপীয় কমিশন।

জানা গেছে, অস্ট্রাজেনেকা ব্রিটেনের অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির সঙ্গে অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে করোনা ভ্যাকসিন তৈরির কাজ করছে। ইতিমধ্যে ভ্যাকসিনটির পরীক্ষা চলছে। এ অবস্থাতেই কোস্পানীটি বিশ্বজুড়ে তার সাপ্লাই চেইন তৈরি করে ফেলেছে।

অস্ট্রাজেনেকার প্রধান নির্বাহী পাসকাল সরিয়ট এক বিবৃতিতে বলেছেন, এই চুক্তির ফলে ইউরোপের লাখ লাখ লোক অনুমোদনের পর অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন লাভের নিশ্চয়তা পাবে।

তিনি আরো বলেন, ইউরোপীয়ান সাপ্লাই চেইনের জন্যে আমরা দ্রুত উৎপাদন শুরু করতে পারবো। আমরা আশা করছি, খুব দ্রুত ভ্যাকসিনটি সবার কাছে পৌঁছানো যাবে।

এপ্রিলে প্রাথমিকভাবে কয়েক’শ স্বেচ্ছাসেবক দিয়ে ভ্যাকসিনের পরীক্ষার কাজ শুরু করে অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি। এখন এ সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১০ হাজার।

জার্মান সরকারি সূত্রে বলা হচ্ছে, চলতি বছরের শেষ নাগাদ ভ্যাকসিন তৈরির কাজ সফলভাবে সম্পন্ন হবে।

জার্মান মন্ত্রণালয় বলছে, শনিবার চুক্তির ঘোষিত ডোজ বেড়ে তা ৪০ কোটি পর্যন্ত হতে পারে। কারণ ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত সকল দেশের যারাই নিতে চায় তারাই যেন ভ্যাকসিনটি পায়। বিশ্ব ব্যাংকের হিসেব মতে, বর্তমানে ইউরোপের জনসংখ্যা ৪৪ কোটি ৭০ লাখের মতো।

মনে করা হচ্ছে, এই চুক্তির ফলে ভ্যাকসিন আবিষ্কারের পর একটি নির্দিষ্ট মূল্যে ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলো তা কেনার অধিকার পাবে। অন্যদিকে বিনিয়োগকারীরাও ঝুঁকি মুক্ত থাকবে।

সাধারণত ভ্যাকসিন তৈরিতে কয়েক বছর সময় লেগে যায়। কিন্তু বর্তমানে ১২ থেকে ১৮ মাসের মধ্যে ভ্যাকিসন তৈরির তোড়জোড় চলছে। আর ভ্যাকসিন কেনার আগাম অর্থ পরিশোধে উৎপাদন প্রক্রিয়াকে দ্রুততর করবে, যদিও মানব দেহে ভ্যাকসিনটির পরীক্ষা এখনও শেষ হয়নি।


  • 91
    Shares

এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button