আন্তর্জাতিক

সহকর্মীর মৃত্যুতে থানায় ভাঙচুর চালাল কলকাতা পুলিশ!


করোনা সন্দেহে হাসপাতালে ভর্তি এক পুলিশ কনস্টেবলের মৃত্যু ঘিরে থানায় ভাঙচুর চালিয়েছে কলকাতা পুলিশ।সোমবার সকালে গরফা থানায় এ ঘটনা ঘটে।পুলিশ সূত্রের বরাতে আনন্দবাজার পত্রিকা জানিয়েছে, গরফা থানায় কনস্টেবল হিসেবে কর্মরত ছিলেন পরিমল রায়।

গত কয়েক দিন ধরে তিনি অসুস্থ ছিলেন। শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা বাড়তে থাকায় রোববার গভীর রাতে তাকে এমআর বাঙুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেই সোমবার সকালে মৃত্যু হয় তার।ওই কনস্টেবলের মৃত্যুর সংবাদ প্রকাশ্যে আসার পরই বিক্ষোভ শুরু হয়ে যায় গরফা থানায়। ভাঙচুরও করা হয় থানার একাংশে।

পুলিশ সদস্যদের একাংশের অভিযোগ, ওই ব্যক্তির যে চিকিৎসার প্রয়োজন ছিল, সময় মতো তা হয়নি। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ তুলেছেন বিক্ষোভকারী।তাদের অভিযোগ, আরও আগে পরিমল রায়কে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া প্রয়োজন ছিল।

বিক্ষোভকারীদের এক জন দাবি করেন, এক সপ্তাহের বেশি সময় ধরে অসুস্থ ছিলেন পরিমল রায়। তার মূল বাড়ি কোচবিহারে। তিনি থানার ব্যারাকেই থাকতেন।বিক্ষোভকারীদের একাংশের দাবি, ওই পুলিশ সদস্য অসুস্থ হয়ে পড়ার পরও তাকে প্রথম দিকে ডিউটি করতে হচ্ছিল।

গরফা থানার এক অ্যাসিস্টান্ট সাব ইনস্পেক্টরের কোভিড পজিটিভ পাওয়া যায়। কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয় ওই কনস্টেবল এক সিভিক ভলান্টিয়ারসহ ৩ জনকে। ডোমজুড়ে কোয়ারেন্টিনে থাকা অবস্থায় তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়। তাকে সেখান থেকে নিয়ে এসে এম আর বাঙুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

কলকাতা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার (সদর) শুভঙ্কর সিনহা বলেন, গরফা থানার এক পুলিশ সদস্যের মৃত্যু হয়েছে। তবে তার লালারসের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে।অন্য এক শীর্ষ কর্তা বলেন, বিক্ষোভের ঘটনা খুবই দুর্ভাগ্যজনক। আমরা ওই পুলিশ সদস্যের ডেথ সার্টিফিকেটের জন্য অপেক্ষা করছি। ঠিক কী কারণে তার মৃত্যু হয়েছে তা জানার চেষ্টা চলছে।


এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

আরও পড়ুন
Close
Back to top button