বিকাল ৪:২৯ শুক্রবার ২২শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং

ঝালকাঠিতে মানবসেবী সাগরের সামাজিক কর্ম পরিদর্শনে জেলা প্রশাসক

নিউজ ডেস্ক | তরঙ্গ নিউজ .কম
আপডেট : নভেম্বর ৬, ২০১৯ , ৯:৪৮ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : বরিশাল
পোস্টটি শেয়ার করুন

রিপোর্ট : ইমাম বিমান ঝালকাঠিতে হিন্দু হয়েও মুসলিম গোরস্থান পরিছন্নতায় মানবসেবী সাগরের সামাজিক উন্নয়ন মূলক কাজ পরিদর্শন করেছেন ঝালকাঠি জেলা প্রশাসক জোহর আলী। গোরস্থান পরিদর্শনের সময় জেলা প্রশাসক জানান, সাগরের এ মহৎ উদ্যোগে আমি প্রশংসিত। আমরা তাকে সাধুবাদ জানাই এবং সেই সাথে পৌরবাসি সকলের সহযোগীতায় কাল থেকে প্রত্যেক ওয়ার্ডে পরিছন্ন কার্যক্রম শুরু করবো। আগামীকাল সকালে ১নং ওয়ার্ডে পরিছন্ন কার্যক্রম শুরু করবো।

মানুষ হয়ে মানুষের সেবা করার ইচ্ছা থাকলে মানবাধিকার কর্মী, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব অথবা কোন ধন্যাঢ্য ব্যক্তি হওয়ার চেয়ে মনের ইচ্ছা শক্তি টুকুই যথেষ্ট বলে মনে করেন সাগর, চঞ্চল ও মিজান এই তিনজন মানবসেবী যুবক। আর তারই ধারাবাহিকতায় গত ৩১ অক্টোবর বৃহস্পতিবার সকাল থেকে নিজেদের অর্থায়নে শ্রমিক নিয়োগ করে এ কাজ শুরু করেছেন তারা। মানবসেবী সাগরের উদ্যোগে তার সহপাঠি মিজানুর রহমান, আসিফ ইকবাল চঞ্চলকে নিয়ে গোড়স্থানের আবর্জনা পরিস্কারের কাজ শুরু করে। আর এই সকল সামাজিক কার্যক্রমের মধ্যমে ঝালকাঠি জেলা প্রশাসক সহ জেলা শহরের সকল শ্রেনী পেশাজীবি মানুষের মনে স্থান করে নিয়েছেন। শুধু গোড়স্থান পরিস্কার করাই নয় তাদের মূললক্ষ্য হচ্ছে ঝালকাঠি শহরকে পরিছন্ন রাখা।

আর সেই লক্ষে পৌছানোর জন্য ইতোমধ্য মানবসেবী সাগর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুক sagar Halder নামের ব্যক্তিগত আইডি থেকে শহর থেকে (১০টি নষ্ট পলিথিনে একটি প্লাস্টিকের গামলা লুফে নিন) পোষ্ট দিয়েও ব্যাপক সাড়া পেয়েছেন মানবসেবী এই যাবক সাগর। শুধু তাই নয় তিনি ফেইসবুক থেকে ঝালকাঠি সদর হাসপাতাল ও তার আসাপাসে পরিস্কার করার কাজের উদ্যোগ নিয়েছেন। এ বিষয় ঝালকাঠি শহরের কয়েকজন বাসিন্দাদের কাছে জানতে চাওয়া হলে তারা জানান, ঝালকাঠিতে হিন্দু হয়েও মুসলিম গোরস্থান পরিছন্নতায় প্রশংসিত মানবসেবী সাগরের এ সকল সামাজিক উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ড নিশ্চয়ই প্রশংসার দাবিদার শুধু প্রসংসাই নয় সাগরের প্রতি আমাদের প্রান ভরে দোয়া রইলো।

তাদের এ সকল উদ্যোগ নেয়ার বিষয় সম্পর্কে জানতে চাওয়া হলে সাগর হালদার জানান, ” সাহায্য নয় সহযোগীতাই আমাদের কাম্য ” আমি হতে পারি হিন্দু কিন্তু সেটা আমার কাছে বড় বিষয় নয় আমি মানব সেবায় কোন ধর্ম বর্ন বিবেচনা করি না। আমি সবসময় মনে করি আমরা সবাই মানুষ আর মানব সেবার মাধ্যমেই সৃষ্টিকর্তাকে পাওয়া যায় বলে আমি বিশ্বাষ করি। তাই আমাদের সামাজিক উন্নয়ন মূলক কাজের ক্ষেত্রে কখনই সাহায্য চাচ্ছিনা, আমরা শুধু সকলের সহযোগীতা কামনা করছি। কোন ধর্ম বর্নের ভেদাভেদ চিন্তা না করে আমি সহ আমরা তিনজন মানুষের বিপদে মানব সেবার লক্ষ্য কাজ করে যাচ্ছি।

Comments

comments