রাত ১:৫৯ বুধবার ২০শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং

ব্রেকিং নিউজ:

কালো তালিকাভুক্ত হচ্ছে অর্ধশতাধিক ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান | ‘আমার বিরুদ্ধে অনুসন্ধান চালালে অনেক এমপি-মন্ত্রীর যাবজ্জীবন দণ্ড হবে’ | লবণ নিয়ে গুজব ছড়ালে কঠোর ব্যবস্থা: প্রেস নোট | দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী | শার্শায় গুজব রটিয়ে বেশী দামে লবন বিক্রি করায় ৩ অসাধু লবণ ব্যবসায়ী আটক | এক কেজির বেশি লবণ কিনলেই আটক করছে পুলিশ | সিরাজদিখানে অতিরিক্ত দামে লবন কেনা-বেচার দায়ে ৬ ক্রেতা বিক্রেতা আটক | চাটমোহরে বিডি ক্লিন’ সংগঠনটির স্বেচ্ছায় আবর্জনা পরিষ্কার | ইলিশায় প্রতিবন্ধীদের সিআরএ রিপোর্ট বৈধকরণ সভা অনুষ্ঠিত | তালতলীতে বেশী দামে লবণ বিক্রি করায় ৩ ব্যবসায়ীকে জরিমানা, একটি সিলগালা |

জেনে নিন অস্ট্রেলিয়ার গোলাপী হৃদের কিছু অজনা রহস্য

নিউজ ডেস্ক | তরঙ্গ নিউজ .কম
আপডেট : অক্টোবর ২৬, ২০১৯ , ৩:৫৯ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : বিচিত্র
পোস্টটি শেয়ার করুন

অস্ট্রেলিয়ার অন্যতম বিখ্যাত গোলাপি হ্রদ হলো লেক হিলিয়ার। যা ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়ার মিডল আইল্যান্ডে অবস্থিত। আবার এই হিলিয়ারের পানিতে গা ভাসাতে অনেকেরই উৎসাহের শেষ নেই। এই হ্রদের পানিতে লবণের পরিমাণ এতটাই বেশি যে, অনেকক্ষণ ভেসে থাকা যায়, ডোবার কোন আশঙ্কা থাকে না!

নীল পানির টানে সি-বীচে যান অনেকে। কোথাও কোথাও ঘোলা পানির দেখাও মেলে। কিন্তু গোলাপী রঙের দেখেছেন কি? এটা কিন্তু কল্পনা নয়, অস্ট্রেলিয়ায় এমন অসংখ্য গোলাপী রঙের হ্রদ রয়েছে। তার পানি নীল না হয়ে গোলাপী রঙের। এই পানিতে নামার অপেক্ষায় থাকেন অনেক পর্যটক।

তবে এখানে পর্যটকদের ভিড় কম। এর কারণ গোলাপী রঙের পানি নয়, দ্বীপটি দুর্গম এলাকায়। ওই এলাকায় পৌঁছনো খুব কষ্টকর ও ব্যয়বহুল। বোট বা হেলিকপ্টারে যেতে হয়।

হিলিয়ার লেকের পানি গোলাপী রঙের কেন? এ নিয়ে কৌতূহলের শেষ নেই। দীর্ঘদিন ধরে চলেছে গবেষণা। অনেকেই ভাবতেন, হিলিয়ারে লবণের পরিমাণ বেশি হওয়াতেই তার পানির রং নীল নয়। আবার অনেকে মত ছিল, ওই লেকে মাইক্রোঅ্যালগি বেশি থাকাতেই তার রং গোলাপি। তবে সম্প্রতি সে রহস্য ভেদ করেছেন বিজ্ঞানীরা।

২০১৫ সালে মিডল আইল্যান্ডের লেক হিলিয়ারের পানির রং নিয়ে গবেষণা শুরু করেন এক্সট্রিম মাইক্রোবায়োমি প্রজেক্ট (এক্সএমপি)-এর এক দল বিজ্ঞানী। এই বিজ্ঞানীরা প্রথমে ভেবেছিলেন, লেক হিলিয়ারের আশপাশের লবণাক্ত পরিবেশে এক্সট্রিমোফিল থাকার জন্য হয়তো তার পানির রং এ রকম। এক্সট্রিমোফিল হল তীব্র প্রতিকূল পরিবেশে মানিয়ে নিতে পারা কিছু আণুবিক্ষনিক জীব।

মিডল আইল্যান্ডে গিয়ে বিজ্ঞানীরা প্রথমেই লেক হিলিয়ারের পানির নমুনা সংগ্রহ করেন। এরপর এক্সট্রিমোফিলগুলোর ডিএনএ বিশ্লেষণ করেন তারা। পরীক্ষা নিরীক্ষার পর বিজ্ঞানীরা দেখেন, লেক হিলিয়ারের পানিতে রয়েছে দশ ধরনের ব্যাকটিরিয়া। যারা লবণাক্ত পরিবেশে থাকতে ভালবাসে। তাছাড়াও এখানে রয়েছে, বিভিন্ন প্রজাতির ডানালিয়েলা অ্যালগি বা শ্যাওলা। যার বেশির ভাগের রং সবুজের পরিবর্তে গোলাপী বা লাল রঙের।

এগুলো ছাড়াও আরেকটি অবাক করা তথ্য পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। লেক হিলিয়ারের পানিতে রয়েছে এক বিশেষ ধরনের ব্যাকটিরিয়া। নমুনা সংগ্রহকৃত পানির ৩৩ শতাংশ জুড়ে ছিল স্যালিনিব্যাকটের রাবার নামের এই বিশেষ ব্যাকটিরিয়া।

এক্সএমপির বিজ্ঞানীদের দাবি, কোন শ্যাওলা নয়, বরং লেক হিলিয়ারের গোলাপী রঙের পানির পিছনে রয়েছে স্যালিনিব্যাকটের রাবার নামের ওই বিশেষ ব্যাকটেরিয়ার হাত।

Comments

comments