সকাল ১১:৪২ বুধবার ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং

রোহিত শর্মার সেঞ্চুরিতে ভারতের জয়

নিউজ ডেস্ক | তরঙ্গ নিউজ .কম
আপডেট : জুন ৫, ২০১৯ , ১১:৪০ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : খেলাধুলা
পোস্টটি শেয়ার করুন

রোহিত শর্মার অনবদ্য সেঞ্চুরিতে দুর্দান্ত জয় পেয়েছে ভারত। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ১৫ বল হাতে রেখে ৬ উইকেটের জয়ে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করেছে বিরাট কোহলির নেতৃত্বাধীন দলটি। দলের হয়ে ১৪৪ বলে ১৩টি চার ও দুটি ছক্কায় ১২২ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেন রোহিত শর্মা।

২২৮ রানের মামুলি স্কোর তাড়া করতে নেমে শুরু থেকেই সাবধানি ব্যাটিং করে ভারত। ৫.১ ওভারে দলীয় ১৫ রানে ফেরেন শিখর ধাওয়ান। কাগিসো রাবাদার গতির শিকার হওয়ার আগে ১২ বলে মাত্র ৮ রান করেন ধাওয়ান।

তিনে ব্যাটিংয়ে নেমে সুবিধা করতে পারেননি অধিনায়ক বিরাট কোহলি। টেস্টের আদলে ব্যাটিং করে আন্দিল ফিহালুকাওয়ের শিকার পরিনত হন কোহলি। তার আগে ৩৪ বলে ১৮ রান করার সুযোগ পান বিরাট।

৫৪ রানে দুই উইকেট হারিয়ে প্রাথমিক বিপর্যয়ে পড়ে যাওয়া দলকে খেলায় ফেরান অন্য ওপেনার রোহিত শর্মা। ইনিংসের শুরু থেকেই দায়িত্বশীলতার পরিচয় দেন তিনি। তৃতীয় উইকেটে লোকেশ রাহুলের সঙ্গে অনবদ্য ৮৫ রানের জুটি গড়ে দলকে জয়ের স্বপ্ন দেখান রোহিত। ৪২ বলে ২৬ রান করে ফেরেন রাহুল।

এরপর মহেন্দ্র সিং ধোনির সঙ্গে চতুর্থ উইকেটে ৭৪ রানের জুটি গড়েন রোহিত শর্মা। তাদের এই জুটিতে জয়ের দুয়ারে চলে যায় ভারত। জয়ের জন্য শেষ দিকে ২৩ বলে প্রয়োজন ছিল ১৫ রান। ছয় নম্বর পজিশনে ব্যাটিংয়ে নেমে রোহিত শর্মার সঙ্গে দলের জয় নিশ্চিত করেন হার্দিক পান্ডিয়া।

এর আগে টস জিতে ভারতের বিপক্ষে ব্যাটিংয়ে নেমেই বিপদে পড়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। বুমরাহর গতির সামনে প্রতিরোধ গড়তে পারেননি আমলা ও কুইন্টন ডি কক। দলীয় ৫.৫ ওভারে ২৪ রানে দুই ওপেনারের উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা হয়ে পড়ে আফ্রিকিা।

বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে চোটাক্রান্ত হন হাশিম আমলা। ইনজুরির কারণে বাংলাদেশের বিপক্ষে খেলা হয়নি দক্ষিণ আফ্রিকান এ মুসলিম ওপেনারের। বিশ্বকাপে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচ খেলতে নেমে সুবিধা করতে পারেননি আমলা। ইনিংসের তৃতীয় ওভারেই জসপ্রীত বুমরাহর শিকার হন তিনি।

এরপর দলের হাল ধরেন অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিস ও রিশি ভেন দা ডুসেন। তৃতীয় উইকেটে তারা ৫৪ রান যোগ করেন। দুই উইকেটে ৭৮ রান করা দক্ষিণ আফ্রিকার দলটি এরপর যুজবেন্দ্র চাহালের লেগ স্পিনে বিভ্রান্ত হয়ে মাত্র ১১ রানের ব্যবধানে হারায় ভেন দার ডুসেন, ডু প্লেসিস ও জেপি ডুমিনির উইকেট।

নিয়মিত বিরতিতে উইকেট পতনের কারণে বড় স্কোর গড়া সম্ভব হয়নি আফ্রিকার।

Comments

comments