দেশজুড়ে

মোংলা বন্দরের উন্নয়নের বিপক্ষে ইন্ধনদাতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে: খুলনা সিটি মেয়র


মোঃ সোহেল, মোংলা প্রতিনিধি: খুলনা সিটি করপোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, মোংলা বন্দরের সকল ক্ষতির কারণ শাহাবুদ্দিন ও মানিক এদেরকে মোংলা থেকে বিতাড়িত করা হয়েছিল, এখনও বিতাড়িত। শুধুমাত্র তারা ভদ্রভাবে চলবে বলেই এখানে তাদের থাকার অনুমতি দেয়া হয়েছিল। তাদের বিগত দিনের যে কার্যক্রম তা সাধারণ শ্রমিকদের বিপক্ষে, মোংলার বিপক্ষে, উন্নয়নের বিপক্ষে। কিন্তু বর্তমান যে বন্দর চেয়ারম্যান আসছে তিনি নাকি তাদের ইন্ধন দিচ্ছেন।

এছাড়া শ্রম অধিদপ্তর বন্দর কর্তৃপক্ষকে চিঠি দিয়ে জানিয়ে দিয়েছে বর্তমান যে শ্রমিক ইউনিয়ন আছে এটিই বৈধ, আগের যে ইউনিয়ন সেটি অবৈধ। তিনি আরো বলেন, আমি পরিস্কার করে বলতে চাই মোংলার স্বার্থে এখানে যে চেয়ারম্যানই আসুক না কেন এই সকল দুর্বৃত্তদের পুনবাসন করার জন্য চেষ্টা করে তিনিই ক্ষতিগ্রস্থ হবে। এবং এতে মোংলার উন্নয়ন ব্যাহত হবে। যেভাবে আমরা ইতিমধ্যে একটা সুন্দর পরিবেশ সৃষ্টি করতে সক্ষম হয়েছি সেইভাবেই মোংলা চলবে। এই সমস্ত দুর্বৃত্ত যেই প্রশয় দিবে তার বিরুদ্ধে আমরা সমস্ত উন্নয়নের স্বার্থে সংশ্লিষ্ট উর্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করবো। মোংলা বন্দরের চেয়ারম্যানকে বলবো, সেই তত্ত্বাবধায়ক সরকারের পর থেকে এখানে একটা সুন্দর পরিবেশ আছে, সেই পরিবেশ নষ্ট হলে তিনি কোনভাবেই এখানে চেয়ারম্যান থাকতে পারবে না।

শুক্রবার সকালে মোংলা বন্দর শ্রমিক কর্মচারী সংঘ চত্বরে আমেরিকা প্রবাসী দীপংকর মৃধার পক্ষ থেকে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে তিনি করোনা ও আম্পানে ক্ষতিগ্রস্থ এবং কর্মহীন প্রায় সাড়ে ৪শ পরিবারের মাঝে এ খাদ্য সামগ্রী তুলে দেন। এরপর সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার, ভাইস চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন, উপজেলা নিবার্হী অফিসার মো: রাহাত মান্নান, থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকতার্ মো: ইকবাল বাহার চৌধুরীসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। এ অনুষ্ঠানের সার্বিক তত্ত্বাবধায়নে ছিলেন পৌর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাংবাদিক আলহাজ্ব শেখ কামরুজ্জামান জসিম।

এর আগে পৌর শহরের ১ নম্বর জেটিতে জার্মান প্রবাসী সাঈদ শাকিল এবং ’কামরান এন্ড নেটওয়ার্ক’র আর্থিক সহযোগিতায় পশুর রিভার ওয়াটারকিপারের ব্যবস্থাপনায় দক্ষিণ কাইনমারি ও কানাইনগর গ্রামের ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ক্ষতিগ্রস্থদের খাদ্য সহায়তা প্রদাণ করা হয়। এ সময় পশুর রিভার ওয়াটারকিপার সাংবাদিক মোঃ নূর আলম শেখ, দক্ষিণাঞ্চল সেবা সংঘ’র সভাপতি এস এম এ মামুন, বাপা নেতা নাজমুল হক, জেলে সমিতির সভাপতি আব্দুর রশিদ, পশুর রিভার ওয়াটারকিপার ভলান্টিয়ার কমলা সরকার, মাহারুফ বিল্লাহ উপস্থিত ছিলেন।


এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button