ভালোবাসায় নিষ্প্রাণ ঘুড়িকে প্রান ফিরিয়ে দেয়

0
27

চৌধুরী নুপুর নাহার তাজ, নিজস্ব প্রতিনিধি: দিনাজপুরের খানসামা উপজেলায় ঘুড়ি প্রেমি রথিন ও চমক রায় বিভিন্ন ডিজাইনের ঘুড়ি তৈরি করে এলাকায় চমক সৃষ্টি করেছেন। এ দুই কিশোর নিত্য নতুন ঘুড়ি তৈরি করে বিভিন্ন এলাকায় লোকদের কাছে প্রসংসিত হয়েছেন। অনেকে জানায় এ দুজন কিশোর ঘুড়ির সঙ্গে আত্মিক সম্পর্ক ও ভালোবাসায় নিষ্প্রাণ ঘুড়িকে প্রাণ ফিরিয়ে দেয়।

খানসামা উপজেলার ভেড়ভেড়ি ইউনিয়নের রামকোলা বাজারের শাহাপাড়ার রণজিৎ রায়ের ছেলে রথিন রায় ও সুকুমার রায়ের ছেলে চমক চন্দ্র রায়। পরিবারবর্গ অনেক বাধা দিলেও ঘুড়ির প্রতি ভালোবাসা দরদ কম হয়নি।
এলাকার অনেকে বলেন যে, রথিন ও চমকের হাতে যেন জাদু রয়েছে। হাতে যে কোন ঘুড়ি আসলেই এমনিতেই তাদের হাতের ছোয়াতে সেরা ঘুড়ি হয়ে যায়।

এলাকার হরেন্দ্র নাথ রায় বলেন সুকুমার ও রণজিৎ এর ছেলের কাছে বিভিন্ন এলাকা থেকে লোক ঘুড়ি ক্রয় করতে আসে। তারা ঘুড়ি সুন্দর উড়ায়। বিভিন্ন জাতের ঘুড়ি তৈরি করে।

রথিন ও চমক ঘুড়ি প্রেমি দুজন কিশোরকে ঘুড়ি বিষয়ক বিভিন্ন বিষয়ে জানতে চাইলে তারা বলেন আমরা ঘুড়ি উড়াতে পছন্দ করি। ঘুড়ি উড়ানোর তাগিদে আমরা নিত্য নতুন ঘুড়ির ডিজাউন তৈরি করি। নতুন ডিজাইনের ঘুড়ি আমরা আকাশে উড়াই। আমাদের পরিবারের অনেকে ঘুড়ি উড়ানো পছন্দ করেন না। আমরা গরীব কৃষক পরিবারের ছেলে।

এলাকার অনেক ঘুড়ি প্রেমী আমাদের কাছে আসে ঘুড়ি কিনে নিয়ে যায়। আমরা নিজে ঘুড়ি তৈরি করি উড়াই, বিক্রি করি আর আমাদের ঘুড়ি একেবারে স্পেশাল।