ঝিনাইদহের মাঠে আছে করোনা স্কোয়াড

0
8

মানিক ঘোষ, নিজস্ব প্রতিনিধি: ঝিনাইদহ জেলাকে দেশের একমাত্র গ্রীন জোন ঘোষণা করার দিনেই নিয়মিত কার্যক্রমের অংশ হিসেবে সাধারণ মানুষকে সচেতন করতে সকাল থেকে মাঠে নেমেছে ঝিনাইদহ জেলার স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন করোনা স্কোয়াড এক এর কর্মীরা। রবিবার সকাল থেকে শৈলকূপার ভাটই হাটের ভেতরে বিভিন্ন পয়েন্টে সরাসরি মাইকে ঘোষণা এবং নতুন উদ্ভাবন করোনাট্য উপস্থাপনের মাধ্যমে তারা মানুষকে বোঝানোর চেষ্টা করে।

ঝিনাইদহের অধিকাংশ বাজারে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় সচেতনতার কোন বালাই নেই বরং শারীরিক দুরত্বের ব্যাপারটিও ক্রমশ কমে যাচ্ছে। করোনা স্কোয়াড এর প্রতিষ্ঠাতা জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক হীরক মুশফিক মনে করেন “করোনাকালীন সাবধানতার অবস্থা যদি এরকম চলতে থাকে তবে আমি আশংকা করছি ঝিনাইদহ হতে পারে দেশের সব থেকে সংকটাপন্ন জেলা। বাজার, চায়ের দোকান, গ্রামের মোড় গুলোতে দিন দিন ভয়ংকর রকম লোক সমাগম হচ্ছে যা ভালো কোন বার্তা দেয় না। এমনকি গোপনে বাইরের জেলা থেকে প্রতিনিয়ত মানুষ ঝিনাইদহে ঢুকছে এমন খবরও পাওয়া যাচ্ছে। সকলের সহযোগিতায় আমরা সবাই মিলে ভালো থাকতে চাই।”

উল্লেখ্য গত মার্চ মাস থেকে করোনাকালীন সচেতনতা, দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ, ইফতার সামগ্রী, ঈদ সামগ্রী, নগদ টাকা, সবজি ইত্যাদি উপহার হিসেবে প্রদান করে আসছে করোনা স্কোয়াড এক। ফেসবুকে করোনা কালের আলাপ নামে দেশ বিদেশের তারকা শিল্পী ও গুণিজনের অংশগ্রহণে অনিয়মিত একটি সরাসরি অনুষ্ঠানের মাধ্যমেও সচেতন করে আসছে এ দলটি।

“করোনা স্কোয়াড এক এর ‘সেবার গাড়ি’ এবং ‘করোনাট্য’ দুটি বিশেষ উদ্ভাবন ইতোমধ্যেই বেশ সাড়া ফেলেছে। তার পরিপ্রেক্ষিতেই আজকের এই কর্মসূচি” বলে জানান দলটির সমন্বয়ক সোনাতন কর্মকার। এসময় অন্যান্যদের মাঝে প্রতিষ্ঠাতা, সমন্বয়ক ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন অন্যতম স্কোয়াড মেম্বার কনক হাসান, জোনায়েদ তিসান, মারজান মিশন এবং স্পন্দন বিশ্বাস।