দেশজুড়ে

পাত্রপক্ষ দেখার আগেই ঘাতক ট্রাক কেড়ে নিল পাত্রী সুবর্ণার প্রাণ

  • 2
    Shares

ফরিদুল ইসলাম রঞ্জু, ঠাকুরগাঁও:  ঠাকুরগাঁওয়ের সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়ে ঘটনাস্থলেই দুলাভাই এবং হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা গেছেন শ্যালিকা। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭ টার দিকে ঠাকুরগাঁও-দিনাজপুর মহাসড়কের ২৮ মাইল নামক এলাকায় মর্মান্তিক এ দুঘর্টনা ঘটে ।

পুলিশ ও দমকল বাহিনী জানায়, রংপুর থেকে মোটরসাইকেল যোগে শ্যালিকা সুর্বনা (২৪)কে নিয়ে শ্বশুর বাড়ি ঠাকুরগাঁওয়ের নেকমরদে যাচ্ছিলেন নিহত শহীদুজ্জামান সুমন (৪০)। ঠাকুরগাঁওয়ে প্রবেশ করার আগে ২৮ মাইল নামক স্থানে পৌছালে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাক মটরসাইকেলটিকে সজোরে চাপা দেয় । এতে ঘটনাস্থলেই সুমন মারা যায় এবং তার শ্যালিকাকে স্থানীয়রা ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।

নিহত শহিদুজ্জামান সুমনের বাড়ি রংপুরের আলম নগরে। তার শ্বশুর বাড়ি ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলার নেকমরদে।

পারিবারিক সুত্রে জানা যায়, আজ নিহত সুবর্ণাকে তার গ্রামের বাসা ঠাকুরগাঁওয়ের নেকমরদে পাত্র পক্ষের দেখতে আসার কথা ছিলো। এদিকে সুবর্ণা ছিলো তার দুলাভাইয়ের রংপুরের বাসায়। পাত্রপক্ষ দেখতে আসার কথা ঠিক হলে আজ দুপুরে তার দুলাভাই নিজের অফিসিয়াল কাজ শেষ করে শ্যালিকা সুবর্ণাকে নিয়ে বাইকে রওনা হয় শ্বশুড়বাড়ীর উদ্দেশ্যে। পথিমধ্যে ঠাকুগাঁও-দিনাজপুর মহাসড়কের ২৮ মাইল নামক স্থানে একটি ঘাতক ট্রাক তাদের চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই মারা যায় দুলাভাই সুমন। আর ঠাকুরগাঁও সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যায় সুবর্ণা। এ ঘটনায় মেয়ের পরিবারে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

সড়ক দূর্ঘটনায় শ্যালিকা-দুলাভাই নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বীরগঞ্জ থানার সাব-ইন্সেপক্টর নিতাই চন্দ্র রায়।


  • 2
    Shares

এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button