দেশজুড়ে

মুন্সীগঞ্জে হত্যার দায়ে পিতা-মাতা ও বোন গ্রেফতার

  • 188
    Shares

আবু সাঈদ দেওয়ান সৌরভ, মুন্সীগঞ্জ: মুন্সিগঞ্জের গজারিয়া উপজেলায় নিখোঁজের ১৭ দিন পর হাসান মিয়া (২০) নামে যুবকের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার হওয়ার ঘটনায় ১০ ঘন্টার ব্যবধানে মূল রহস্য উদঘাটনসহ জড়িত থাকার অপরাধে নিহতের বাবা- মা ও বোনকে আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশের দেওয়া তথ্য সুত্রে জানা যায়, গত ২১ ডিসেম্ব্র রাতে নিহত হাসান ধর্ষনের উদ্দেশ্যে তার ছোট বোনের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। নিহতের ছোট বোন চিৎকার করে। চিৎকার শুনে নিহত হাসান এর বাবা-মা ও বোন নিহতের ঘরে প্রবেশ করে। হাসানের মা পা ধরে রাখে , বাবা নাকে মুখে বালিশ চাঁপা দেয় এবং বোন পুরুষাঙ্গ কর্তন করে মৃত্যু নিশ্চিত করে। লাশ গুম করার উদেশ্যে নিহতের লাশ বাড়ির পাশের ডোবায় ফেলে রাখে। ঘটনার পারপার্শি¦ক সাক্ষ্য প্রমানের ভিওিতে নিহত হাসানের বাবা-মা ও বোনকে জিজ্ঞাবাদের ভিওিতে নিহতের বাবা মো. শামীম শিকদার (৪০) , মা হাসিনা বেগম (৩৮) ও বোন শিলা (১৫) কে হত্যার অভিযোগে লাশ উদ্ধারের ঘটনার ১০ ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতার করে পুলিশ।

গজারিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. রইছ উদ্ধিন প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চত করে। প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরো জানানো হয় যে, মো. শামীম শিকদার (৪০) , মা হাসিনা বেগম (৩৮) ও বোন শিলা (১৫) বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। গ্রেফতার কৃতদের স্বীকারোক্তির ভিওিতে হাসানের ঘর থেকে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত চাকু ও গামছা উদ্ধার করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২১ ডিসেম্বর সোমবার রাতে মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার হোসেন্দী গ্রামের শামীম হোসনের ছেলে হাসান (২০) নিখোঁজ হয়। গতকাল ৮ই জানুয়ারি শুক্রবার সকাল আনুমানিক ১০টার দিকে মুন্সিগঞ্জের গজারিয়া উপজেলায় হোসেন্দী গ্রামের শামীম হোসেন এর বাড়ির পাশের ডোবা থেকে নিখোঁজের ১৭ দিন পর শামিমের নিজ ছেলে হাসান মিয়ার (২০) অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।


  • 188
    Shares

Related Articles