দেশজুড়ে

২ দিনের মধ্যে অস্থায়ী সড়ক তৈরি হবে-ডিসি

  • 168
    Shares

রাব্বি ইসলাম, স্টাফ রিপোর্টারঃ ঢাকা-টাঙ্গাইল ৬ লেন প্রকল্পের জাতীয় মহাসড়কের মির্জাপুর উপজেলার গোড়াই এলাকায় চলমান উন্নয়ন কাজে বন্যা, করোনা ইত্যাদির কারণে আশানুরূপ অগ্রগতি না হওয়ায় ঘন্টার পর ঘন্টা যানজট যেনো লাগাতার দুর্ভোগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছিলো। এই যানজট নিরসনে আগামী ২ দিনের মধ্যে অস্থায়ী সড়ক তৈরি করা হবে এবং মহাসড়ক দিয়ে যাতায়াতকারী ২৬টি অঞ্চলের জনগণের দুর্ভোগ অতি দ্রুতই লাঘব হবে বলে মন্তব্য করেছেন টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসক মো. আতাউল গনি। সোমবার (১৪ই সেপ্টেম্বর) সকালে মহাসড়কের গোড়াই হাটুভাঙ্গা এলাকার মহাসড়কের বেহালঅবস্থা পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

আরও বলেন, এই ৬ লেন প্রকল্পের কাজ বাস্তবায়নে ভূমি অধিগ্রহণসহ অবৈধ স্থাপনা ইত্যাদি উচ্ছেদে জেলা প্রশাসন থেকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করা হবে। দ্রুত সময়ের মধ্যে এই মহাসড়কের কাজ শেষ হলে এতে মানুষের ও দেশের অর্থনীতির অগ্রগতি সাধিত হবে।

মহাসড়কে কেনো ধীরগতিতে কাজ হচ্ছে এমন প্রশ্নের জবাবে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের (প্রকৌশলী) প্রকল্প পরিচালক আবু ইসহাক সাংবাদিকদের জানান, বিদ্যুত লাইন, গ্যাস লাইন ও অবৈধ স্থাপনার কারণেই কাজ ধীরগতিতে হচ্ছে। তবে এগুলো উচ্ছেদ করা হলে আগামী দেড় মাসের মধ্যে এই সড়কের গোড়াই হাটুভাঙ্গা এলাকায় ফ্লাইওভারসহ সার্ভিস লেনের অসম্পূর্ণ কাজ সম্পন্ন হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। উল্লেখ করেন, এই অংশের ৮১ ভাগ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। শুধুমাত্র ২টি ফ্লাইওভারের কাজ চলমান আছে।

পরিদর্শনকালে অন্যান্যের মধ্যে টাঙ্গাইল জেলা সহকারি পুলিশ সুপার শফিকুল ইসলাম, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মীর এনায়েত হোসেন মন্টু, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আবদুল মালেক, সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. জুবায়ের হোসেন, বাংলাদেশ জাতীয় পল্লী উন্নয়ন সমবায় ফেডারেশনের সভাপতি খন্দকার বিপ্লব মাহমুদ উজ্জ্বল, মির্জাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. সায়েদুর রহমান, সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের (প্রকৌশলী) প্রকল্প পরিচালক আবু ইসহাক, অতিরিক্ত প্রকল্প পরিচালক জিকরুল হাসান, সহকারি প্রকল্প ম্যানেজার মো. আব্দুল আহাদ, এ.এম.এল’এর অতিরিক্ত প্রকল্প পরিচালক ফজলে মোনায়েমসহ সংশিষ্ট কর্মকর্তাগণ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


  • 168
    Shares

Related Articles