যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রের ৩ কর্মকর্তা রিমান্ড শেষে কারাগারে

0
97

যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রের ৩ কিশোর হত্যার ঘটনায় রিমান্ডে আরও ৩ কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানো তিন কর্মকর্তা হলেন- যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রের তত্ত্বাবধায়ক (সহকারী পরিচালক) আব্দুল্যা আল মাসুদ, সহকারী তত্ত্বাবধায়ক (প্রবেশন অফিসার) মাসুম বিল্লাহ, ফিজিক্যাল ইন্সট্রাক্টর একেএম শাহানুর আলম।

বুধবার (১৯ আগস্ট) বিকেলে রিমান্ড শেষে ওই ৩ কর্মকর্তাকে যশোর জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হয়। পরে বিচারক তাদেরকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। ওই হত্যার ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার তদন্ত কর্মকর্তা যশোর চাঁচড়া ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক রোকিবুজ্জামান  এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদে বন্দী নির্যাতন ও খুনের ব্যাপারে ওই কর্মকর্তাদের কাছ থেকে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য মিলেছে। এ ব্যাপারে আরও অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ফের তাদের বিরুদ্ধে রিমান্ড আবেদন জানানো হবে। এর আগে যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রের আরও দুই কর্মকর্তা সাইকো সোস্যাল কাউন্সিলর মো. মুশফিকুর রহমান ও কারিগরি প্রশিক্ষক (ওয়েল্ডিং) ওমর ফারুককে রিমান্ড শেষে গত সোমবার কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ৩ আগস্ট যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে কিশোরদের দুই গ্রুপের মধ্যে মারামারি হয়। সিসিটিভির ফুটেজ দেখে ওই ঘটনায় জড়িতদের চিহ্নিত করা হয়। এরপর বৃহস্পতিবার দুপুরে কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে কয়েকজন কিশোর অন্তত ১৮ জনকে বেধড়ক মারপিট করে। মারপিট ও নির্যাতনে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাদের ফেলে রাখা হয়। এ ঘটনায় ৩ কিশোর নিহত ও আরও ১৫ জন আহত হয়। নিহতরা হলো- পারভেজ হাসান রাব্বি (১৮), রাসেল সুজন (১৮) ও নাইম হোসেন (১৭)।

এ ঘটনায় পুলিশ ওই কেন্দ্রের পাঁচ কর্মকর্তাকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ চালায়। আজ রিমান্ড শেষ হয়।