রাত ৯:১৯ সোমবার ১৪ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং

আদিবাসীদের উন্নয়নের জন্য নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে সরকার: এমপি গোপাল

নিউজ ডেস্ক | তরঙ্গ নিউজ .কম
আপডেট : অক্টোবর ১০, ২০১৯ , ১১:৫৮ পূর্বাহ্ণ
ক্যাটাগরি : রংপুর
পোস্টটি শেয়ার করুন

এন.আই.মিলন, দিনাজপুর প্রতিনিধি: শারদীয় দুর্গাপূজার প্রতিমা বিসর্জনের পরের দিন যুগযুগ ধরে দিনাজপুরের বীরগঞ্জে ঐতিয্যাবাহি আদিবাসীদের মিলন মেলা বা বৌ মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বীরগঞ্জে ঐতিয্যাবাহি আদিবাসীদের মিলন মেলা বা বৌ মেলা শারদীয় দুর্গাপূজার প্রতিমা বিসর্জনের পরের দিন যুগযুগ ধরে অনুষ্ঠিত হওয়ার অংশ হিসাবে ৯ অক্টোবর বুধবার সন্ধ্যা ৬ টায় উপজেলার গোলাপগঞ্জ হাই স্কুল মাঠে অনুষ্ঠিত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে বক্তব্যে দিনাজপুর-১ (বীরগঞ্জ-কাহারোল) আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল বলেছেন, আদিবাসীদের জন্য বিশেষ কোটা পদ্ধতি চালু রাখাতে সরকারের নিকট দাবি জানিয়ে বলেন, শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর নৃত্যাত্বিক আদিবাসীদের উন্নয়নের জন্য নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। যখন বর্তমান সরকার আদিবাসীদের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন তখন এক শ্রেণীর ভূমি দস্যু আদি বাসীদের জমি দখল করে অনেক ভূ-সম্পত্তির মালিক হয়ে রাজনৈতিক মূখোশ পড়ে নেতা সেজে আছেন, তাদেরকে চিহ্নিত করতে হবে সমুচিত জবাব দিতে হবে।

তিনি আদিবাসীদের ভূমি কমিশন বাস্তবায়নের দাবি মেনে নেবার আহ্বান জানিয়ে প্রসাশনের উদ্দেশ্যে বলেন আদিবাসীরা কোন কাজে সরকারি অফিসে গেলে তাদের কাজকে আগে প্রধান্য দিতে হবে, তাদের অভিযোগ গ্রহন করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখহাসিনার ক্ষুধা দারিদ্রমুক্ত সোনার বাংলাদেশ গড়তে নৃত্যাত্বিক আদিবাসীদের সামাজিক মর্যাদায় প্রতিষ্টিত করতে নানা মুখি পদক্ষেপ গ্রহন করেছেন সরকার।

মরিচা ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউপি আ’লীগের সাধারন সম্পাদক মো. আতাহারুল ইসলাম চৌধুরী হেলাল এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আমিনুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ইয়ামিন হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ও জেলা পরিষদের সাবেক সদস্য মো. নুর ইসলাম নুর, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শামীম ফিরোজ আলম, যুব ও ক্রীড়া বিষষক সম্পাদক মো. ইয়াসিন আলী, নিজপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল খালেক সরকার, বীরগঞ্জ থানার এসআই এরশাদ প্রমুখ। আলোচনা সভার শেষে সাংস্কৃতিক প্রতিযোগীতার বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরন এমপি গোপাল।

Comments

comments