বাগমারায় জাতীয় স্থানীয় সরকার উন্নয়ন মেলার সমাপনী

0
120

বাগমারা প্রতিনিধিঃ“সেবা ও উন্নতির দক্ষ রুপকার উন্নয়নে উদ্ভাবনে স্থানীয় সরকার” প্রতিপাদ্য ঘিরে রাজশাহীর বাগমারায় শেষ হল তিনদিন ব্যাপি জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস উপলক্ষে উন্নয়ন মেলা। মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ,এফ,এম আবু সুফিয়ান এর সভাপতিত্বে আয়োজিত উন্নয়ন মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চ্যুয়ালি বক্তব্য রাখেন, রাজশাহী-৪ (বাগমারা) আসনের সংসদ সদস্য, সড়ক পরিবহণ ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক।

প্রধান অতিথি বলেছেন, ইউনিয়ন পরিষদ হচ্ছে প্রতিটি এলাকার উন্নয়নের সর্বশেষ স্তর। ইউনিয়ন পরিষদের মাধ্যমে প্রত্যন্ত এলাকায় বিভিন্ন উন্নয়ন সংগঠিত হয়ে থাকে। জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস উপলক্ষে তিনদিন ব্যাপি উন্নয়ন মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। তিনি আরো বলেন, প্রতিবছর যে উন্নয়ন মেলা হবে সেখানে সবার অংশ গ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে। সাধারণ নাগরিকের অংশ গ্রহণ বৃদ্ধি করতে পারলে সরকারের সেবার মান সম্পর্কে জানতে পারবে। সর্বপুরি জন সম্পৃক্ততা বৃদ্ধি করতে হবে। এই মেলার মাধ্যমে স্থানীয় সরকার বিভাগের প্রশাসনিক দায়বদ্ধতা বৃদ্ধি পাবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারনে প্রত্যন্ত এলাকার যোগাযোগ, শিক্ষা, চিকিৎসা, তথ্য প্রযুক্তি, কৃষি সহ বিভিন্ন স্তরে ব্যাপক উন্নয়ন সংগঠিত হচ্ছে।

প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা রাজীব আল রানার পরিচালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা অনিল কুমার সরকার, চেয়ারম্যান ফোরামের সভাপতি বাসুপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান লুৎফর রহমান। উক্ত অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদ, মমতাজ আক্তার বেবী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ গোলাম সারওয়ার আবুল, চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ আজাহারুল হক, রফিকুল ইসলাম, আনোয়ার হোসেন, মনিরুজ্জামান রঞ্জু, রেজাউল হক, মাজেদুল ইসলাম সোহাগ, শাফিকুল ইসলাম শাফি, মোশারফ হোসেন, বিকাশচন্দ্র ভৌমিক, মোজাম্মেল হক সহ উপজেলা প্রশাসন, পরিষদ, রাজনৈতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

উন্নয়ন মেলায় ইউনিয়ন ও পৌরসভার পক্ষ থেকে ২০টি স্টল স্থাপন করা হয়েছিল। উক্ত স্টলের মধ্যে থেকে সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন ও সামাজিক কর্মকান্ডের উপর ভিত্তি করে যোগীপাড়া ইউনিয়ন পরিষদকে সেরা নির্বাচিত করা হয়। সেরা নির্বাচিত হওয়ায় ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক এমপির পক্ষ থেকে নগদ ৫০ হাজার টাকা পুরস্কার প্রদান করা হয়। সেই সাথে সেরা সংরক্ষিত মহিলা সদস্য হিসেবে দ্বীপপুর ইউনিয়নের হাসিনা বানুকে ২৫ হাজার এবং সাধারণ সদস্য হিসেবে সোনাডাঙ্গা ইউনিয়নের আনিছার রহমানকে ২৫ হাজার টাকা। এছাড়াও সেরা গ্রামপুলিশ টিম হিসেবে শুভডাঙ্গা ইউনিয়নের গ্রাম পুলিশদেরকে ১০ হাজার টাকা প্রদান করা হয় ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক এমপির পক্ষ থেকে। অপরদিকে উন্নয়ন মেলায় সেরা স্টলের মধ্যে প্রথম হয় নরদাশ ইউনিয়ন পরিষদ, দ্বিতীয় গনিপুর ইউনিয়ন এবং তৃতীয় হয় ভবানীগঞ্জ পৌরসভা। অনুষ্ঠান শেষে উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে পুরস্কার প্রদান করা হয়েছে।