জায়েদা খাতুনের বাজিমাত

0
191

হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে শেষ হাসি হাসলেন স্বতন্ত্রপ্রার্থী জায়েদা খাতুন। নৌকার আজমত উল্লা খানকে ১৬ হাজার ১৯৭ ভোটে পরাজিত করে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হলেন গাজীপুরের মেয়র। এর মধ্য দিয়ে প্রথম নারী মেয়র পেলো ঢাকার পাশের গুরুত্বপূর্ণ এ সিটি করপোরেশনটি।

সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের মা জায়েদা পেয়েছেন দুই লাখ ৩৮ হাজার ৯৩৪ ভোট। তার নিকটতম প্রার্থী আওয়ামী লীগের অ্যাডভোকেট আজমত উল্লা খান পেয়েছেন দুই লাখ ২২ হাজার ৭৩৭ ভোট।

বৃহস্পতিবার (২৫ মে) দিবাগত রাত দেড়টায় রিটার্নিং কর্মকর্তা ফরিদুল ইসলামে এ ফলাফল ঘোষণা করেন।

নির্বাচনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী গাজী আতাউর রহমান পেয়েছেন ৪৫ হাজার ৩৫২ ভোট। চূড়ান্ত ফলাফলে তিনি তৃতীয় হয়েছেন। নির্বাচনের অন্য মেয়র প্রার্থীদের মধ্যে লাঙ্গল প্রতীকে জাতীয় পার্টির প্রার্থী এম এম নিয়াজ উদ্দিন ১৬ হাজার ৩৬২ ভোট পেয়েছেন। এছাড়া গোলাপ ফুল প্রতীকে জাকের পার্টির মো. রাজু আহাম্মেদ ৭ হাজার ২০৬ ভোট, মাছ প্রতীকে গণফ্রন্টের প্রার্থী আতিকুল ইসলাম ১৬ হাজার ৯৭৪ ভোট, স্বতন্ত্র প্রার্থী ঘোড়া প্রতীকের মো. হারুন-অর-রশীদ ২ হাজার ৪২৬ ভোট এবং হাতি প্রতীকের সরকার শাহনূর ইসলাম পেয়েছেন ২৩ হাজার ২৬৫ ভোট।

নতুন নগরমাতা জায়েদা খাতুনের জন্ম গাজীপুর সিটি করপোরেশনের কানাইয়া এলাকায় ১৯৬২ সালে ১০ ফেব্রুয়ারি। তার স্বামী মিজানুর রহমান পাঁচ বছর আগে মারা যান। তিনি দুই ছেলে ও এক মেয়ের জননী।

মনোনয়নপত্র দাখিল করার আগে জায়েদা খাতুনকে রাজনীতিতে দেখা যায়নি। মূলত সাবেক মেয়র ছেলে জাহাঙ্গীর আলমের ইমেজকে ভিত্তি করেই তিনি রাজনীতিতে আসেন।