বিশেষ দিবস ও ব্যাক্তিত্বশীর্ষ নিউজ

বরেণ্য পরমাণু বিজ্ঞানী ওয়াজেদ মিয়ার মৃত্যুবার্ষিকী আজ


দেশবরেণ্য পরমাণু বিজ্ঞানী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বামী ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়ার ১৩তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ। ২০০৯ সালের ৯ মে মারা যান তিনি।

রংপুরের পীরগঞ্জের এ কৃতি সন্তানের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে সোমবার (৯ মে) দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করেছে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ। এতে অংশ নেবেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদসহ মহানগর আওয়ামী লীগের নেতারা। দিনটি ঘিরে পীরগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন ও স্থানীয় আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন সংগঠন নানা কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।

দিনটি উপলক্ষে সোমবার পীরগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা আওয়ামী লীগ, ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া ফাউন্ডেশন এবং আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনগুলো শ্রদ্ধা নিবেদন, ফাতেহা পাঠ ও কবর জিয়ারত, স্মৃতিচারণ, মিলাদ ও দোয়া মাহফিলসহ বিভিন্ন কর্মসূচি নিয়েছে।

এম এ ওয়াজেদ মিয়ার ভাতিজা এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পীরগঞ্জ পৌরসভার মেয়র তাজিমুল ইসলাম শামীম জাগো নিউজকে জানিয়েছেন, সোমবার সকালে জেলা ও উপজেলা প্রশাসন, জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগ এবং সহযোগী সংগঠনসমূহ, বিভিন্ন সামাজিক ও পেশাজীবী সংগঠন এবং সুশীল সমাজের পক্ষ থেকে লালদীঘির ফতেহপুরে জয়সদনে এম এ ওয়াজেদ মিয়ার কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানাবেন। জয়সদন প্রাঙ্গণে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল শেষে দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ করা হবে।

পীরগঞ্জের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিরোদা রানী রায় জানান, ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়ার মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে সোমবার সকালে জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন, দুপুরে উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে স্মৃতিচারণ, মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে।

বরেণ্য এ পরমাণু বিজ্ঞানীর কর্মময় জীবনের স্মৃতিচারণে এ আলোচনা সভায় তার নিকটাত্মীয়রা উপস্থিত থাকবেন। জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী জুম কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠানে যুক্ত হওয়ার কথা রয়েছে।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জামাতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বামী ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়ার জন্ম ১৯৪২ সালের ১৬ ফ্রেরুয়ারি রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার লালদিঘীর ফতেহপুরে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে।

Facebook Notice for EU! You need to login to view and post FB Comments!


এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button