বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

হত্যাকান্ড বন্ধে ভারতে হোয়াটসঅ্যাপ সেবা সংকুচিত

ছেলে ধরার গুজব ছড়িয়ে গণধোলাইয়ে মানুষ হত্যার ঘটনায় সরকারের আইনি পদক্ষেপের হুমকির প্রেক্ষিতে ভারতে সেবা সংকুচিত করেছে হোয়াটসঅ্যাপ। খবর এএফপি’র।
গত দুই মাসে মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে গুজব বার্তা ছড়িয়ে দেশটির বিভিন্ন স্থানে এ পর্যন্ত গণধোলাইয়ে ২০ জনের নিহত হওয়া খবর পাওয়া গেছে। ফেসবুকের মালিকানা প্রতিষ্ঠানটি শুক্রবার এক বার্তায় জানায়, এটি পরীক্ষামূলকভাবে বার্তা প্রেরণকারীদের বার্তা প্রেরণ ক্ষমতা সীমিত করছে এবং একই সঙ্গে এটি পাঁচ জনের অধিক ব্যক্তির সঙ্গে বার্তা প্রেরণও সীমিত করবে।
এতে বলা হয়, এটি মিডিয়া ম্যাসেজের পাশে দ্রুত ফরোয়ার্ড বাটন সরিয়ে নিচ্ছে।
বার্তায় তারা বলেন, আমরা বিশ্বাস করি এই পরিবর্তনের মূল্যায়ন আমরা অব্যাহত রাখবো। ব্যবহারকারীদের জন্য হোয়াটসঅ্যাপকে একটি ব্যক্তিগত মোবাইল ম্যাসেজিং অ্যাপ হিসেবে গড়ে তুলতে আমাদের সহায়তা অব্যাহত থাকবে।
নরেন্দ্র মোদি সরকারের চাপের প্রেক্ষিতে ইতোমধ্যেই প্রতিষ্ঠানটি বার্তা আদানপ্রদানে ব্যবহারকারীকে চিহ্নিতকরণের সুবিধাসম্বলিত নতুন বৈশিষ্ট্য যুক্ত করার ঘোষণা দিয়েছে।
এছাড়া হোয়াটসঅ্যাপ ভারতের বিভিন্ন পত্রিকায় এটি ব্যবহারের বিভিন্ন পরামর্শ এবং কিভাবে ভুল তথ্য বন্ধ করা যায় তার নির্দেশিকা ছাপিয়েছে। তবে ভারতের তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয় বৃহস্পতিবার বিবৃতিতে জানিয়েছে এসকল পরামর্শ ও নির্দেশিকাই যথেষ্ট নয়।

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.