খানসামা সহ দিনাজপুরের ১১ টি এলাকা রেডজোন ঘোষনা হতে পারে

0
66

চৌধুরী নুপুর নাহার তাজ, নিজস্ব প্রতিনিধি: খানসামা সহ দিনাজপুরের ১১ টি এলাকা রেডজোন ঘোষনা হতে পারে। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় দিনাজপুর শহরের ৪ টি এলাকাসহ জেলার ১১ টি এলাকা রেডজোন ঘোষণা করতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরকে পত্র দিয়েছে জেলা করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধ কমিটি। কমিটির আহবায়ক দিনাজপুর জেলা প্রশাসক মো. মাহবুবুল আলম এবং সদস্য সচিব জেলা সিভিল সার্জন ডা. মো.আব্দুল কুদ্দুস স্বাক্ষরিত ওই পত্রটি ইতোমধ্যে ঢাকা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে পৌছেছে।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে দিনাজপুর শহরের ৪টি এলাকাসহ জেলার যে ১১ টি এলাকাকে ঝুকিপূর্ণ চিহ্নত করে রেডজোন ঘোষণার প্রস্তাবনা দেয়া হয়েছে, সেই এলাকাগুলো হলো শহরের প্রাণকেন্দ্র ষষ্টিতলা, হাউজিং মোড়, রামনগর এবং ৭ নং উপশহর। অন্যান্যগুলো হলো, বিরল উপজেলার মাধববাটী, বোচাগঞ্জ উপজেলার শহীদ পাড়া, খানসামা উপজেলার ৪ নং খামারপাড়া ইউনিয়নের ভান্ডারদহ, তেলীপাড়া ( ঢুড্ডা ওস্তাপাড়া), চিরিরবন্দর উপজেলার ৪ নং ইউসবপুর ইউনিয়নের উত্তর সুখদেবপুর, পার্বতীপুর উপজেলার ৩ নং রামনগর ইউনিয়নের কাজীপাড়া, বিরামপুর উপজেলার চাঁদপুর এবং নবাবগঞ্জ উপজেলার গোলাপগঞ্জ ইউনিয়নের পশ্চিম পলাশবাড়ী।

দিনাজপুরে করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধ কমিটি’র সদস্য সচিব এবং জেলা সিভিল সার্জন ডা. মোঃ আব্দুল কুদ্দুস জানিয়েছেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণ দেশের অন্যান্য ঝুকিপূর্ণ এলাকাগুলোর পাশাপাশি আমাদের দিনাজপুর জেলার ১১ টি ঝুকিপূর্ণ এলাকা রেডজোন ঘোষণা করে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। তারপর যা যা করণীয় তা আমারা পালন করবো। ১১টি এলাকা রেড জোনের পাশাপাশি আরও ৯ টি এলাকা ইয়লো জোন ঘোষণা করতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে পত্র দেয়া হয়েছে। এই এলাকাগুলোও প্রয়োজনে রেডজোন ঘোষণা করা হতে পারে বলেও জানিয়েছেন সিভিল সার্জন ডা. মো ঃআব্দুল কুদ্দুস।

এদিকে জেলা শহরের চিহ্নিত ঝুকিপূর্ণ এলাকাগুলোর মধ্যে ষষ্টিতলা এলাকাটি স্থানীয় এলাকাবাসী লকডাউন করে দিয়েছে। ফলে শহরের এই প্রাণকেন্দ্রটির রাস্তা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় প্রয়োজনীয় কাজে বের হওয়া মানুষ যানবাহন চলাচল নিয়ে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন।