খেলাধুলা

মেসি বার্সেলোনা ছাড়ার বিষয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন লা লিগা সভাপতি

  • 15
    Shares

সময়টা ভালো যাচ্ছে না বার্সেলোনার। মাঠের সেই ছন্দ আর নেই। নতুন মৌসুম ঘিরে কোচ কিংসলে কোম্যান এখনও পুরোপুরি গুছিয়ে নিতে পারেনি দলকে। এর মধ্যেই ক্লাব ছেড়েছেন ঘরের ছেলে লিওনেল মেসি। ক্লাবের সবচেয়ে বড় তারকাকে হারিয়ে কিউল সমর্থকদেরও মনোবল প্রায় শূন্যের কোঠায়। এছাড়া ক্লাবে থেকে যাওয়া অনেক ফুটবলারের বেতনও কমাতে হয়েছে। তবে লিওনেল মেসি বার্সেলোনা ছাড়ার পেছনে রিয়াল মাদ্রিদ সভাপতি ফ্লোরেন্তিনো পেরেজকে দায়ী করেছেন স্প্যানিশ লা লিগা সভাপতি হাভিয়ের তেবাস।

স্প্যানিশ লা লিগা সভাপতি হাভিয়ের তেবাসের দাবি, বার্সেলোনার আজকের এই দূরবস্থার জন্য আর কেউ নন রিয়াল মাদ্রিদ সভাপতি ফ্লোরেন্তিনো পেরেজ দায়ী। স্প্যানিশ পত্রিকা ’স্পোর্ত’কে দেয়া একটি স্বাক্ষাৎকারে এই বিস্ফোরক মন্তব্য করেন তেবাস। তিনি জানান, ক্লাবগুলোর চলমান আর্থিক সংকট দূর করতে এ বছরের আগস্টে যুক্তরাষ্ট্রের আর্থিক প্রতিষ্ঠান সিভিসির চুক্তি করে লা লিগা কর্তৃপক্ষ। যার অধীনে লা লিগার ক্লাবগুলো মোট ২ দশমিক ৭ বিলিয়ন ইউরোর নতুন বিনিয়োগ পেতো। এই অর্থ বার্সেলোনার আর্থিক সংকট কাটাতে এবং দেনা মেটাতে সাহায্য করতো। এমনকি দলটি লিওনেল মেসিকেও ধরে রাখতে পারতো। বার্সেলোনাও এই চুক্তির ব্যাপারে আগ্রহী ছিলো। কিন্তু শেষ পর্যন্ত রিয়াল মাদ্রিদ এই চুক্তি থেকে সরে আসায় তাদের দেখাদেখি বার্সেলোনাও এই চুক্তিকে না বলে। তেবাস আরও উল্লেখ করেন, বার্সেলোনা ম্যানেজমেন্টকে রীতিমতো মানসিকভাবে জিম্মি করে রেখেছিলেন পেরেজ।

লা লিগার ২০টি ক্লাবের মধ্যে ১৬টি ক্লাব সিবিসি এগ্রিমেন্টের বিনিয়োগ গ্রহণ করতে সম্মত হয়েছে। রিয়াল মাদ্রিদ, বার্সেলোনা ছাড়াও এই চুক্তি থেকে সরে দাঁড়ায় অ্যাথলেটিক বিলবাও এবং ওভেইদো। এই চুক্তিতে স্বাক্ষর করলে বার্সেলোনা সবচেয়ে বেশি ২৭০ মিলিয়ন ইউরো পেতো। আর রিয়াল মাদ্রিদের জন্য বরাদ্দ ছিলো ২৬১ মিলিয়ন ইউরো। বিনিয়োগ চুক্তি থেকে প্রাপ্ত তহবিলের ৩০ শতাংশ অর্থ ক্লাবগুলো ফুটবলারদের ট্রান্সফার ফি ও বেতনের জন্য খরচ করতে পারবে। আর বাকি ৭০ শতাংশ বরাদ্দ ক্লাবগুলোর অবকাঠামোগত ও প্রযুক্তিগত উন্নয়নের জন্য। হাভিয়ের তেবাসের দাবি- অন্য ক্লাবগুলো যেখানে এই অর্থ দিয়ে নিজেদের দল গুছাচ্ছে, তখন এই বিনিয়োগ না নিয়ে বোকামী করেছে রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনা।


  • 15
    Shares

এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন