দেশজুড়ে

ঠাকুরগাঁওয়ে একটি পরিবারকে পরিকল্পিতভাবে হেনস্তা করার অভিযোগ


ফরিদুল ইসলাম রঞ্জু, ঠাকুরগাঁও: ঠাকুরগাঁওয়ে একটি পরিবারকে পরিকল্পিতভাবে বিভিন্নভাবে হেনস্তা করার অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগে জানাযায়,ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের পস্তপুর গ্রামের মৃত আশরাফ আলীর পরিবারকে হেনস্তা করছে একই এলাকার আসাদুজ্জামান।

মৃত আশরাফ আলীর স্ত্রী শরীফা বেগম অভিযোগ করেন তার তিন ছেলে চাকুরীর সুবাদে ঠাকুরগাঁওয়ের বাইরে অবস্থান করছেন।এই সুযোগে আসাদুজ্জামান তাদের জমিতে জোরপূর্বক বৈদ্যুতিক খুটি বসায় এবং সেখান থেকেই বিদ্যুতের লাইন বাড়ি অব্দি নিয়ে যায়।অথচ পাশেই আসাদুজ্জামান এর জমি রয়েছে।এছাড়াও শরীফা বেগমদের জমিতে লাগানো বিভিন্ন প্রজাতির গাছ কেটে ফেলে।মঙ্গলবার বিকেলের পর আসাদুজ্জামানের নির্দেশে তার লোক সবুজ,রাসেল কয়েকটি কেটে ফেলে।

শরীফা অভিযোগ করে বলেন এই সময় ইউপি মেম্বার আব্দুল মালেক সেখানে উপস্থিত থাকলেও কোন রকম বাধা দেয়নি।শরীফার ছেলে সামসুজ্জোহা জানান তারা ইতিপূর্বে বৈদ্যুতিক খুটি সরানোর জন্য ঠাকুরগাঁও পল্লীবিদ্যুৎ অফিসে দরখাস্ত দেন।অথচ অদৃশ্য কারণে পল্লীবিদ্যুৎ কর্মকর্তারা নিরব ভূমিকা পালন করছেন।

বুধবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়,ইউপি মেম্বার আব্দুল মালেক বাইসাইকেল যোগে গাছের ডালপালা নিয়ে যাচ্ছেন।এগুলো কোথায় নিয়ে যাচ্ছেন জিজ্ঞেস করলে তিনি জানান ইউনিয়ন কাউন্সিলে নেওয়া হচ্ছে।

এব্যাপারে মোহাম্মদপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ সোহাগের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন,গাছগুলোর মালিকানা নিয়ে আমরা ধোয়াশার মধ্যে আছি।আপাতত এগুলো ইউপি পরিষদে জমা করা হচ্ছে, পরবর্তীতে সঠিক মালিকানা দেখে হস্তান্তর করা হবে।

সামসুজ্জোহা বলেন গাছ নিয়ে ধোয়াশার কিছুই নেই।গাছগুলো লাগানোর সময় ইউনিয়ন পরিষদের সাথে চুক্তিনামায় স্বাক্ষর করেই আমরা গাছ লাগিয়েছি।

এব্যাপারে ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি তানভিরুল ইসলাম বলেন অভিযোগ পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছিলাম।লিখিত অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন