‘মূল চরিত্রে পুঁজিবাজারকে প্রতিষ্ঠা করতে চাই’

0
37

পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) নতুন চেয়ারম্যান হিসবে দায়িত্ব নিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাংকিং অ্যান্ড ইন্সুরেন্স বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-্উল-ইসলাম।আজ রোববার (১৭ মে) তাকে এই পদে নিয়োগ দিয়ে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করেছে অর্থমন্ত্রণালয়। আর এর পরপরই তিনি বিএসইসিতে যোগ দেন।

বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বিএসইসিতে যান। বিএসইসির একমাত্র কমিশনার কামালুজ্জামান, নির্বাহী পরিচালক মাহমুবুল আলম এবং মোঃ সাইফুর রহমান তাকে ফুল দিয়ে স্বাগত জানান। তিনি ঘণ্টা দুয়েকের মতো সময় কাটান বিএসইসিতে।

প্রথম দিনে মূলত তিনি তাদের সঙ্গে পরিচিত হন। তবে এর ফাঁকেই তিনি তার কিছু ভাবনার কথা তুলে ধরেন। তিনি জানিয়েছেন, অন্যান্য দায়িত্বের পাশাপাশি তিনি অটোমেশন, আন্তর্জাতিক অঙ্গনে দেশের পুঁজিবাজারকে তুলে ধরা এবং সার্ভিল্যান্স ব্যবস্থাকে আরও জোরদারের বিষয়ে গুরুত্ব দেবেন।

এসব ব্যবস্থায় বাজারের প্রতি দেশি-বিদেশি বিনয়োগকারীদের আস্থা বাড়বে, বাজার হবে আরও বিনিয়োগ-বান্ধব।পরে গণমাধ্যমকে তিনি জানিয়েছেন, তার প্রধান কাজ হবে পুঁজিবাজারকে তার মূল চরিত্রে প্রতিষ্ঠা করা। অর্থাৎ এই বাজারকে শিল্পায়নের জন্য দীর্ঘমেয়াদী অর্থায়নের প্রধান উৎসে পরিণত করা।

শিবলী রুবাইয়াত বলেন, ‘বাংলাদেশে বেশি কাজ হয় অর্থ বাজার নিয়ে। সে তুলনায় পুঁজিবাজার নিয়ে কাজ হয়েছে কমই। অথচ দীর্ঘমেয়াদি অর্থায়নের জন্য এই বাজারই হচ্ছে আসল জায়গা। পুঁজিবাজারের মূল চরিত্র বা প্রধান ভূমিকা যে শিল্পায়নের জন্য প্রয়োজনীয় অর্থায়নের ব্যবস্থা করা-এই ধারণাটিকে প্রতিষ্ঠা করা জরুরি। তাহলেই এই বাজার তার প্রাপ্য গুরুত্বটুকু পাবে।

তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত আমাদের বাজার মূলত ইক্যুইটি নির্ভর। বাজারে বন্ড, ডিবেঞ্চার ইত্যাদির চালু করতে হবে। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে যেসব সংস্কার হয়েছে, সেগুলোর বাস্তবায়ন নিশ্চিত করতে হবে। তাহলে বাজারে দীর্ঘ মেয়াদে স্থিতিশীলতা ফিরবে।

উল্লেখ, গত ১৪ মে বিএসইসির সর্বশেষ চেয়ারম্যান ড. এম খায়রুল হোসেনের মেয়াদ শেষ হয়েছে। তিনি ২০১১ সালের ১৫ মে প্রথম তিন বছরের জন্য বিএসইসির চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন। পরে দুই দফায় তার মেয়াদ বাড়ানো হয়।