আন্তর্জাতিক

যুক্তরাষ্ট্রে প্রাণহানি ৯০ হাজার, আক্রান্ত ১৫ লাখ পেরিয়েছে


করোনায় সবেচেয়ে ক্ষতির মুখে পড়া মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে থামছেই স্বজন হারাদের সংখ্যা। প্রতিদিনই নতুন করে হাজার হাজার মানুষ প্রানঘাতি ভাইরাসটির শিকার হচ্ছেন। যাতে দেশটিতে বসবাসরত ৯০ হাজারেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। ১৫ লাখ পেরিয়েছে আক্রান্তের সংখ্যা।

বাংলাদেশ সময় আজ রোববার সকাল পর্যন্ত বিশ্বখ্যাত জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যানুযায়ী, দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় ২৩ হাজার ৪৮৮ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ১৫ লাখ ৭ হাজার ৭৭৩ জনে দাঁড়িয়েছে। প্রাণ গেছে আরও ১ হাজার ৬০৬ জনের। ফলে, এখন পর্যন্ত ট্রাম্পের দেশে করোনায় ৯০ হাজার ১১৩ জন মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

আক্রান্তের তুলনায় সুস্থতার হার অনেক কম। তারপরও সেখানে পুনরুদ্ধার হয়েছেন ৩ লাখ ৩৯ হাজার ২৩২ জন। আক্রান্তদের মধ্যে বর্তমানে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছেন ১৬ হাজার ২৪৮ জন।

এর মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ বৃহৎ শহর নিউইয়র্কে। যেখানে প্রাণহানি ২৮ হাজার ছাড়িয়েছে। আক্রান্ত ৩ লাখ প্রায় ৫৮ হাজার ৯৯ জনে ছাড়িয়েছে। এরপরেই রয়েছে নিউ জার্সি। যেখানে ভাইরাসটির হানা দিয়েছে ১ লাখ ৪৬ হাজার ৩৮৯ জনের দেহে। যাতে প্রাণ গেছে ১০ হাজার ২৬০ জনের।

আবারও আক্রান্ত বেড়েছে ইলিনয়সে। যেখানে সংক্রমণ ছড়িয়েছে প্রায় সাড়ে ৯২ হাজার। এর মধ্যে না ফেরার দেশে ৪ হাজার ১২৯ জন। একই অবস্থা ম্যাসাসুয়েটস অঙ্গরাজ্যের। প্রায় ৮৫ হাজার আক্রান্তদের মধ্যে প্রাণ গেছে ৫ হাজার ৭০৫ জনের।

এমন অবস্থার পরও প্রাণঘাতি করোনায় বিপর্যয় কাটিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আবারও সচল হবে আশা প্রকাশ করেছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ট ট্রাম্প। করোনা ঠেকাতে ভ্যাকসিন আসুক আর না আসুক আমেরিকা সচল হবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন তিনি।

গত শুক্রবার (১৫ মে) হোয়াইট হাউসে এক প্রেস ব্রেফিংয়ে এ ঘোষণা দেন। চলতি বছরের শেষ নাগাদ করোনার ভ্যাকসিন তৈরি হতে পারে বলেও জানান ট্রাম্প।


এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button