সিরাজগঞ্জ পয়েন্টে বেড়েই চলেছে যমুনার পানি

0
103

সিরাজগঞ্জ পয়েন্টে যমুনা নদীর পানি দিন দিন বেড়েই চলেছে। গত ৭ দিনে পানি বেড়েছে ৪৯ সেন্টিমিটার। যেকোনো সময় নদীর পানি বিপৎসীমা অতিক্রম করতে পারে। পানি বাড়তে থাকায় জেলাটিতে আবারও বন্যার শঙ্কা দেখা দিয়েছে। বুধবার (১৯ আগস্ট) সিরাজগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সহকারী প্রকৌশলী রনজিৎ কুমার সরকার এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, সকালে সিরাজগঞ্জ হার্ড পয়েন্টে যমুনার পানি রেকর্ড হয়েছে ১৩ দশমিক ৩৫ মিটার। যা বিপৎসীমার (১৩ দশমিক ৩৫ মিটার) ৬ সেন্টিমিটার নিচে রয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় বেড়েছে ৩ সেন্টিমিটার।

অপরদিকে, কাজিপুর পয়েন্টে রেকর্ড করা হয়েছে ১৫ দশমিক ২৫ মিটার। যা বিপৎসীমার (১৫ দশমিক ২১ মিটার) ৪ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ৩ সেন্টিমিটার পানি বেড়েছে। তবে পানি বেড়ে যাওয়ার হার কিছুটা কমেছে। দু’এক দিনের মধ্যে পানি কমতে শুরু করবে বলেও জানান পানি উন্নয়ন বোর্ড।

প্রায় ২ মাসের বন্যায় জেলার কাজীপুর, বেলকুচি, উল্লাপাড়া, শাহজাদপুর, সদর, চৌহালী ও তাড়াশ উপজেলার প্রায় পাঁচ লাখ ৩৮ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়ে। পানিবন্দি মানুষের মধ্যে অনেকে বাঁধ, উঁচু স্থান ও বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আশ্রয় নেয়। তারা বাড়ি ঘরে ফিরতে না ফিরতেই আবারও যমুনার পানি বাড়তে শুরু করেছে। এতে পানিবাহিত রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন বন্যাকবলিত মানুষ। সেই সাথে দুর্ভোগ বেড়েই চলেছে।

সিরাজগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্রে জানা যায়, গত জুনের প্রথম থেকেই যমুনা পানি সিরাজগঞ্জ ও কাজিপুর পয়েন্টে বাড়তে শুরু করে। ২৮ জুন উভয় পয়েন্টেই বিপৎসীমা অতিক্রম করে। এরপর ৪ জুলাই থেকে আবার কমতে শুরু করে এবং যমুনার পানি ৬ জুলাই বিপৎসীমার নিচে নেমে যায়। এরপর ৯ জুলাইয়ের পর যমুনার পানি দ্রুত বাড়তে থাকে এবং ১৩ জুলাই পানি দ্বিতীয় দফায় বিপৎসীমা অতিক্রম করে ২টি পয়েন্টে। টানা ২৬ দিন পর ৭ আগস্ট যমুনার পানি উভয় পয়েন্টেই বিপৎসীমার নিচ দিয়ে প্রবাহিত শুরু হয়। ১১ আগস্ট পর্যন্ত কমতে থাকলেও ১২ আগস্ট থেকে আবারও পানি বাড়তে শুরু করে এবং এখন পর্যন্ত অব্যাহত রয়েছে।