হারের জন্য যাদের দোষারোপ করলেন ইনু!

0
57

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কুষ্টিয়া-২ (মিরপুর-ভেড়ামারা) আসনে ১৪ দলীয় জোটের হয়ে নৌকা প্রতীক নিয়েও হেরে গেছেন জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু। এই আসনে ট্রাক প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা স্বতন্ত্র প্রার্থী কামারুল আরেফিন বেসরকারিভাবে জয়ী হয়েছেন। তিনি পেয়েছেন ১ লাখ ১৫ হাজার ৭৯৯ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ইনু পেয়েছেন ৯২ হাজার ৪৪৫ ভোট।

নির্বাচনের পরদিন সোমবার (৮ জানুয়ারি) হারের কারণ নিয়ে একটি বেসরকারি টেলিভিশনের সঙ্গে কথা বলেছেন হাসানুল হক ইনু। যেখানে নির্বাচনে হারের জন্য প্রশাসনকে দায়ী করেছেন তিনি। ইনু বলেন, সারাদেশে নির্বাচন একটা পর্যায়ে হয়েছে। তবে কিছু জায়গায় ভোট কারচুপি হয়েছে। দুর্ভাগ্যজনকভাবে আমার এলাকাও এর মধ্যে পড়েছে।

তিনি বলেন, প্রশাসনের সরাসরি সহায়তায় ভোট কারচুপি হয়েছে। হারের জন্য আমি প্রশাসনকেই দায়ী করছি। তারা পরিকল্পিতভাবে আমার এলাকার ১৮টি কেন্দ্রে ভোট কারচুপি করেছে। অনিয়মের একটি উদাহরণ টেনে ইনু বলেন, একটি কেন্দ্রে ২৯০০ ভোট পেয়েছে স্বতন্ত্র প্রার্থী আর নৌকা পেয়েছে মাত্র ৮৫টি ভোট। এতেই বিষয়টি স্পষ্ট। এমন আরও ১৮টি উদাহরণ তার কাছে আছে বলেও জানান তিনি।

স্থানীয় আওয়ামী লীগের কেও তাকে সমর্থন করেছে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, স্থানীয় আওয়ামী লীগের একাংশ করেছে। আর বাকি অংশ প্রকাশ্যেই স্বতন্ত্র প্রার্থীর হয়ে কাজ করেছে। প্রথম থেকেই এ আসনটি ইনুকে ছেড়ে দিয়েছিল আওয়ামী লীগ। ইনু নৌকা প্রতীক পেলেও, ভোটের প্রচারের শুরু থেকেই স্থানীয় আওয়ামী লীগের বেশকিছু নেতা কামারুলের পক্ষে সমর্থন জানান।