রাত ৩:৩৪ বৃহস্পতিবার ২১শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং

বিয়ের কথা বলে ডেকে নিয়ে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ

নিউজ ডেস্ক | তরঙ্গ নিউজ .কম
আপডেট : জুলাই ২১, ২০১৯ , ৪:১০ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : রাজশাহী
পোস্টটি শেয়ার করুন

জেলা প্রতিনিধি, নাটোরঃ নাটোরের বড়াইগ্রামে পালিয়ে বিয়ে করার কথা বলে ডেকে নিয়ে প্রতারক প্রেমিকের কাছে ধর্ষণের শিকার হয়েছে এক স্কুল ছাত্রী (১৫)। এ ঘটনায় রোববার (২১ জুলাই) প্রেমিকের দুই সহযোগীকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। এর আগে শুক্রবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে বনপাড়া-হাটিকুমরুল মহাসড়কের রেজুর মোড় এলাকার একটি পুকুর পাড়ে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় আটকরা হলো-বড়াইগ্রাম রেজুর মোড় এলাকার মোতালেব হোসেনের ছেলে সোহেল রানা (৩৬) ও লক্ষীকোল এলাকার আসলাম হোসেনের ছেলে ইমন (২৮)। তবে প্রতারক প্রেমিক পাবনা সদর উপজেলার দুবলার চর ঘাটনি পাড়া গ্রামের জিল্লুর রহমান ওরফে নাহিদকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

থানা ও স্কুলছাত্রীর পরিবার সুত্রে জানা যায়, প্রতারক জিল্লুর উপজেলার রাজ্জাক মোড়ে কাঠমিস্ত্রীর কাজ করে। প্রায় ৬ মাস আগে জিল্লুর আগ্রান উচ্চ বিদ্যালয়ের ঐ ছাত্রীর সঙ্গে মোবাইলে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। এ সময় জিল্লুর নিজেকে ঢাকার মোবাইল ব্যবসায়ী নাহিদ হিসাবে পরিচয় দেয়। এক পর্যায়ে জিল্লুর মেয়েটিকে বিয়ে করবে বলে প্রস্তাব দেয়। সে অনুযায়ী শুক্রবার জিল্লুর ঢাকা থেকে এসে রেজুর মোড়ে অপেক্ষা করছে জানিয়ে তাকে পালিয়ে আসতে বলে। পরে রাত সাড়ে ১০টার দিকে মেয়েটি লক্ষীপুর এলাকার নানার বাড়ি থেকে সোহেল ও ইমনের সহযোগিতায় মোটর সাইকেলে চেপে পাশের রেজুুর মোড়ে আসে। পরে তাদের দুজনের সহায়তায় জিল্লুর মেয়েটিকে একটি পুকুর পাড়ে নিয়ে ধর্ষণ করে। কিছু সময় পরে স্বজনেরা মেয়েটিকে বাড়িতে না পেয়ে খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে স্থানীয়দের সহায়তায় ঘটনাস্থল থেকে তাকে উদ্ধার করে।

এ ব্যাপারে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বড়াইগ্রাম সার্কেল) হারুন অর রশিদ জানান, এ ঘটনায় দুজনকে আটক করা হয়েছে। মুল আসামীকে আটকের চেষ্টা চলছে। মেয়েটির মেডিকেল চেকআপ সম্পন্ন হয়েছে।

Comments

comments