রাত ৪:২৯ মঙ্গলবার ১৯শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং

বিমান ছিনতাই নাটকের অবসান, অস্ত্রধারী ছিনতাইকারী নিহত

নিউজ ডেস্ক | তরঙ্গ নিউজ .কম
আপডেট : ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০১৯ , ৯:৪৫ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : জাতীয়
পোস্টটি শেয়ার করুন

 

চট্টগ্রামের শাহ আমানত বিমানবন্দরে বিমান ছিনতাই নাটকের অবসান হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত অস্ত্রধারী যুবক মাহাদী নিহত হয়েছেন। রোববার (২৪ ফেব্রুয়ারি) রাত পৌনে নয়টায় সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে ব্রিফিংয়ে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে।এতে বলা হয়, লে. কর্নেল ইমরুলের নেতৃত্বে মাত্র ৮ মিনিটের অভিযানে এই ছিনতাইয়ের ঘটনার অবসান ঘটানো হয়েছে। রাজধানীর হলি আর্টিজান অভিযানেও নেতৃত্ব দিয়েছিলেন লে. কর্নেল ইমরুল।

 

ব্রিফিংয়ে সেনা বাহিনীর চট্টগ্রাম জোনের জিওসি মেজর জেনারেল মতিউর রহমান বলেন, ‘অত্যন্ত দুঃখজনকভাবে একটা বিমান ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছিলো। এই ছিনতাই নাটকের অবসান হয়েছে সফলভাবে। আজ বিকাল পাঁচটা ৩৩ মিনিটে আমাদের এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলের মাধ্যমে বিমানবাহিনী জানতে পারে যে, বিমানটি হাইজ্যাক হয়েছে। ককপিট থেকে আমাদের পাইলট এটি জানান। বিমানটি পাঁচটা ৪১ মিনিটে এখানে অবতরণ করে। এরপর এখানে নিয়োজিত বিমান বাহিনী এবং অন্যান্য নিরাপত্তাবাহিনীর সমন্বয়ে ইমার্জেন্সি পদক্ষেপ নেয়া হয়।’

 

ছিনতাইকারী একজন বলে জানানো হয় ব্রিফিংয়ে। তার বয়স আনুমানিক ২৫/২৬ বছর।তিনি বলেন, ‘ছিনতাইকারীকে নিভৃত করার জন্য আমাদের কমান্ডো বাহিনী প্রথমে তাকে আত্মসমর্পণের জন্য আহ্বান জানায়। কিন্তু সেই আহ্বান প্রত্যাখ্যান করে সে আক্রমণাত্মক হওয়ার চেষ্টা করলে তার ওপর স্বাভাবিক অ্যাকশন যেটা, সেটাই হয়েছে। আমাদের সাথে গোলাগুলিতে ছিনতাইকারী প্রথমে আহত এবং পরবর্তীতে মারা যায়।’

 

এই ছিনতাইয়ের ঘটনায় কোন যাত্রী হতাহত হননি বলেও জানান মেজর জেনারেল মতিউর রহমান।তিনি বলেন, ‘বিমানের ১৩৪জন যাত্রী এবং ১৪জন ক্রু সদস্যসহ মোট ১৪৮জন ছিলেন। তাদের সকলেই অক্ষত অবস্থায় বিমান থেকে বের হয়ে এসেছেন। বিমানের কোন ক্ষতি হয়নি এবং বিমানটি তল্লাশি করি এটিকে ইতোমধ্যেই চলাচল বা উড়ার জন্য নিরাপদ ঘোষণা করা হয়েছে।’

 

কেনো এই ঘটনা ঘটিয়েছেন তিনি? এমন প্রশ্নের জবাবে মেজর জেনারেল মতিউর রহমান বলেন, ‘এই অল্প সময়ের মধ্যে তার সঙ্গে যতটুকু কথোপকথন হয়েছে, সে শুধু একটি দাবিই করেছিল। সে আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলতে চেয়েছিলো এবং তার স্ত্রীর সাথে কথা বলতে চেয়েছিলো। এরপর আর তার সাথে কোনো কথা বলার সুযোগ আমাদের ছিল না, যেহেতু দ্রুততর সময়ে এই ছিনতাইয়ের অবসান ঘটাতে চেয়েছিলাম।’

Comments

comments