সকাল ১১:০০ বুধবার ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং

মোহনপুরে দাওয়াত না পেয়ে মাদরাসায় অনুষ্ঠানে হামলা

নিউজ ডেস্ক | তরঙ্গ নিউজ .কম
আপডেট : জানুয়ারি ২৮, ২০১৯ , ৯:০১ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : রাজশাহী
পোস্টটি শেয়ার করুন

রাজশাহী ব্যুরো ঃ রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলার কেশরহাট পৌরসভার এলাকায় সাঁকোয়া বাকশৈল কামিল মাদ্রসার দাখিল ও আলিম পরীক্ষার্থীদের বিদায় বরণ ও দোয়া অনুষ্ঠানে দাওয়াত না পেয়ে ক্ষুদ্ধ এলাকাবাসী ও অভিভাবকবৃন্দ হামলা ও ভাংচুর চালিয়ে অনুষ্ঠান পন্ড করে দেয়।স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানগেছে, রাজশাহী মোহনপুর উপজেলার সাঁকোয়া বাকশৈল কামিল মাদরাসা প্রতিষ্ঠা লগ্ন থেকেই জার্কজমক পূর্ণভাবে বিদায় ও নবীণ বরণ অনুষ্ঠানে স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ অভিভাবদের সাথে বিদায় ,নবীণ বরণ ও দোয়া অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।

সোমবার সকাল ১০টার দিকে বিদায় ও নবীণ বরণ অনুষ্ঠানে স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ দাওয়াত না দিয়ে অধ্যক্ষ আব্দুল কাদের, উপধাক্ষ্য মাওলানা আবুল কালাম আজাদ কর্মচারী শিক্ষার্থীদের নিয়ে মাদরাসা চত্তরে অনুষ্ঠান চলাকালীন অবস্থায় এলাকাবাসী বিদায় অনুষ্ঠানে হামলা চালিয়ে বিদায় ও নবীণ বরণ অনুষ্ঠান পন্ড করে দেয়। অধ্যক্ষ, উপাধ্যক্ষ ও পরীক্ষার নিয়ন্ত্রন কক্ষ হামলা চালিয়ে কম্পিউটার, প্রিন্টার ও আসবাপত্র ভাংচুর করে।

এক পর্যায়ে শিক্ষকদের সাথে স্থানীয়দের বাক-বিতন্ড হৈইচৈই শুরু হয় শিক্ষার্থীরা আতঙ্কিত হয়ে ওই অনুষ্ঠান ত্যাগ করে। খবর পেয়ে মোহনপুর থানা পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন।

এবিষয়ে অধ্যক্ষ আব্দুল কাদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, প্রতিষ্ঠানের আর্থিক সংকট কারণে শিক্ষক কর্মচারী শিক্ষার্থীদের সাথে আলোচনা করে এ বছর সাদামাঠা ভাবে বিদায় ও নবীন বরণ অনুষ্ঠান করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সবাইকে দাওয়াত দেওয়া সম্ভব হয়নি,শুধু গর্ভনিং বর্ডি শিক্ষার্থীদের নিয়ে দোয়া অনুষ্ঠান করা হয়। এতে স্থানীয়রা ক্ষিপ্ত হয়ে অধ্যক্ষ ও উপধাক্ষ্য পরীক্ষার মনিটরিং রুমে ঢুকে কম্পিউটার ভাংচুরসহ তান্ডব চালায় যার ফলে পরীক্ষা গ্রহনের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য লোপাট হয়েছে । তিনি এ বিষয়ে উদ্ধর্তন কতৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

মোহনপুর থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) আবুল হোসেন জানান, খবর পেয়ে মাদরাসায় বিদায় অনুষ্ঠানে পুলিশ পাঠিয়ে উত্তেজিত এলাকাবাসীকে শান্ত করা হয়।

Comments

comments