রাত ৪:৩৪ শনিবার ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং

রাজধানীর বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভিড়

নিউজ ডেস্ক | তরঙ্গ নিউজ .কম
আপডেট : জুন ৫, ২০১৯ , ১০:৪৮ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : ঢাকা
পোস্টটি শেয়ার করুন

এস,এম,মনির হোসেন জীবন ॥ কখনও মেঘ! আবার কখনও রোদ, রোদ-মেঘের এই লুকোচুরি খেলার মাঝে রাজধানীর বিনোদন কেন্দ্রগুলোয় নারী পুরুষ শিশুসহ দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ঢল নেমেছে। তবে, হালকা বৃষ্টি ও মেঘাচ্ছন্ন আবহাওয়ার কারণে কিছু কিছু বিড়ম্বনায় পড়তে হচ্ছে বিনোদন কেন্দে আসা দর্শনার্ধীদের। সারাদিন বৃষ্টির কারণে বের হতে না পেরে বিকেলের দিকে কমতে শুরু করলেই মানুষ বেড়াতে বের হয়েছেন। আর এতে কোলাহলে ভরে উঠেছে রাজধানীর প্রধান বিনোদন কেন্দ্র হাতিরঝিল সহ অন্যান্য বিনোদন কেন্দ্র গুলো।

আজ বুধবার (০৫ জুন) পবিত্র ঈদুল ফিতরের দিনে ঢাকা মহানগরীর বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে পরিবার-পরিজন কিংবা প্রিয়জন নিয়ে ভিড় জমাচ্ছেন দর্শনার্থীরা।

আজ ঈদের দিন বিকেলে রাজধানীর বিনোদন কেন্দ্র ঘুরে দেখা যায়, রামপুরা হাতিরঝিল বিনোদন কেন্দ্র, শিশুমেলা, চিড়িয়াখানা, উত্তরার ডিয়াবাড়িতে ফ্রেন্ডাসী আইল্যান্ড পার্ক ও ডিয়াবাড়ি বিভিন্ন বিনোদন কেন্দ্রে দর্শনার্থীদের ভিড় দেখা গেছে। ঈদের দিনে বিনোদন কেন্দ্রে আনন্দ উপভোগ করতে আসছেন অনেকেই। ঘরে বসে না থেকে পরিবার-পরিজন তাদের সন্তানদেরকে নিয়ে ঈদের আনন্দ উপভোগ করতে এসেছেন । তবে, হাতিরঝিল এলাকাজুড়ে বেশি সমাগম ঘটেছে দর্শনার্থীদের। ঈদের দিন বিকেলে সবচেয়ে বেশি ভিড় রাজধানীর হাতিরঝিল, শ্যামলী শিশু মেলা ও উত্তরা ফ্রেন্ডাসী আইল্যান্ড পার্কে। সেখানে শিশুদের সঙ্গে যেন বড়রাও শিশু হয়ে গেছেন। ঈদের দিনে শহরের এই বিনোদন কেন্দ্রে সবাই মিলেমিশে একাকার হয়ে যেন নিংড়ে তুলে নিচ্ছেন নিজেদের পেছনে ফেলে আসা পরমানন্দ। তাই বিকেলেই ঘর থেকে বেরিয়ে পড়েন বিনোদন পিপাসুরা। ঈদের দিন বিকেলে হাতিরঝিল বিনোদন কেন্দ্র ঘুরতে আসা শিশুরা নৌকা, লঞ্জ ও স্পিড বোর্ডে চড়ে আনতে করতে দেখা গেছে। আবহাওয়া যাই হোক না বিনোদন পিপাসুদের কোনোভাবেই চার দেয়ালের মাঝে আটকানো যায়নি। ঈদের আনন্দ উপভোগের করতে একযোগে বেরিয়ে পড়েছেন। তবে রিকশার শহরে আজ বেড়ানোর অন্যতম বাহন রিকশার কদর তুঙ্গে, ভাড়াও বেশি। মৌসুমি রিকশা ও ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা চালকরা বিভিন্ন অঞ্চল থেকে এসে বিনোদনকেন্দ্রমুখী মানুষের কাছ থেকে দ্বিগুণেরও বেশি ভাড়া হাঁকাচ্ছেন। এতে বেকায়দায় পড়ছেন বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ।

তুরাগের চন্ডালভোগ গ্রামের বাসিন্দা গৃহকর্মী জুলেখা আক্তার আজ জানান, আজ বুধবার ছিল ঈদের দিন। রাস্তাঘাটে তেমন ভিড়ও নেই বলা যায়, অনেকটা ফাঁকা আর পরিবেশটাও দারুণ। তাই সুযোগটা নিয়েছেন। বিকেলে দুই সন্তানকে সাথে নিয়ে ডিয়াবাড়ি শিশু বিনোদন কেন্দ্র দেখতে এসেছি। ছেলে-মেয়ে তার পছন্দ মতো বিভিন্ন রাইডে চড়তে চাইছে। তাকে সেই সুযোগ করে দেওয়া হচ্ছে। কেউ এসেছেন বন্ধু বা বান্ধবীকে নিয়ে আবার কেউ এসেছেন স্ত্রী ও সন্তান নিয়ে।

বিনোদন কেন্দ্রে ঘুরতে আসা দর্শনার্থী শহীদুল ইসলাম শিশির আজ জানান, উৎসবের দিনগুলো ছাড়া বিনোদনগুলোতে সাধারণত আসা সম্ভব হয় না। যান্ত্রিক জীবন ছেড়ে খোলামেলা সবুজ পরিবেশে এসে ভালোই লাগছে।

বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের সংবাদকর্মী রুমন মোস্তাফিজ বলেন, রাজধানীর বিনোদন কেন্দ্রগুলোর মধ্যে এখন হাতিরঝিলই একটু পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন ও বসা যায়। অনেক বড় এলাকা হওয়াতে মানুষের জটলাও বাধে না। তাই সবাই এখানেই বিনোদন খোঁজে।

Comments

comments