দেশজুড়ে

কাজিপুরের চরগিরিশ ইউনিয়নে ১০৬ জন জেলে পেল খাদ্য সহায়তা

  • 505
    Shares

তৌকির আহাম্মেদ হাসু, সরিষাবাড়ী (জামালপুর) প্রতিনিধি: সিরাজগঞ্জ জেলার কাজিপুর উপজেলায় ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরে ঝাটকা আরোহণ নিষিদ্ধ সময়ে,ঝাটকা আরোহণ কারী জেলেদের বিশেষ ভিজিএফ কর্মসূচির আওতায় (খাদ্যশস্য) চরগিরিশ ইউনিয়নের ১০৬ জন জেলে পেল খাদ্যসহায়তা।

উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার কার্যালয় এর মাধ্যমে বাস্তবায়ীত ১ম ও ২য় কিস্তির সরকারি বরাদ্দ চাল সুষ্ঠুভাবে উপজেলা খাদ্যগোদাম (১ম কিস্তি-৪১ জন) ও ছালাল নদীর ঘাট (২য় কিস্তি-৬৫ জন) থেকে বিতরণ করা হয়েছে।১ম কিস্তির চাল বিতরণে প্রধান অতিথি হিসেবে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব খলিলুর রহমান সিরাজী উপস্থিত থেকে ৪১ জন জেলের মাঝে ফেব্রুয়ারি ও মার্চের ৪০ কেজি হারে ৮০ কেজি করে চাল বিতরণ করেন।

অন্যান্যদের মধ্যে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা আতাউর রহমান, ট্যাগ অফিসার আবু মোতালেব,ইউ,পি সচিব খোরশেদ আলম উপস্থিত ছিলেন।২য় কিস্তির চাল বিতরণে উপস্থিত ছিলেন ট্যাগ অফিসার আবু মোতালেব,ইউ পি সচিব খোরশেদ আলম, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি আক্তা্রুজ্জামান তালুকদার মিল্টন, সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুল মালেক (বি এস-সি),ইউ পি সদস্য ও প্যানেল চেয়ারম্যান খোরশেদ আলম শিপন,ইউ পি সদস্য আনোয়ার হোসেন, তারা মিয়া, রেজাউল করিম, ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি সফিকুল ইসলাম (সুমন), সাধারণ সম্পাদক শাহীন আলম, কৃষক লীগের সভাপতি সুবাদ আলী মন্ডল, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি হাসানুজ্জামান তরফদার (অনিক)।এ সময় ৬৫ জন জেলের মাঝে এপ্রিল ও মে মাসের ৪০ কেজি হারে ৮০ কেজি করে চাল বিতরণ করা হয়।

উপজেলা মৎস্য অফিস সূত্রে জানা যায়, কাজিপুর উপজেলার ১৭৭০ জন নিবন্ধন ধারী জেলেদের তালিকা হতে ১৪৬২(১ম কিস্তি-৪১ জন,২য় কিস্তি -৬৫ জন)জন ঝাটকা ইলিশ আরোহনে বিরত থাকা দুঃস্থ ও নিবন্ধিত
মতস্যজীবিদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে তালিকা করার জন্য সংশ্লিষ্ট ইউ পি চেয়ারম্যান/সচিবদের কাজিপুর মতস্য কর্মকর্তা নির্দেশ প্রদান করেন।

চরগিরিশ ইউনিয়নের ১৩৪ জন জেলের নিবন্ধন রয়েছে,এর মধ্যে বরাদ্দ পাওয়া গেছে ১০৬ জনের। উক্ত বরাদ্দের ১ম কিস্তি(ফেব্রুয়ারি-মার্চ)২২ এপ্রিল ৪১ জনকে ৮০ কেজি করে এবং ২য় কিস্তি (এপ্রিল-মে)৭ মে ৬৫ জনকে ৮০ কেজি করে চাল সুষ্ঠুভাবে বিতরণ করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

উল্লেখ্য যে,নিবন্ধিত জেলেদের মধ্যে অনেকেই স্বচ্ছল এবং বর্তমানে এ পেশায় জড়িত নেই,তাই কিছু নিবন্ধনহীন প্রকৃত জেলে যারা বর্তমানে জাল ও জলের সাথে সম্পৃক্ত থেকে পরিবার পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছে তাদেরকেও বিশেষ কোন ব্যাবস্থায় এ সহায়তার আওতায় আনার জন্য স্থানীয়রা দাবি জানিয়েছেন। কিন্তু একটি কুচোক্রী মহল দলীয় নেতা-কর্মী ও সরকারের ভাবমুর্তি নষ্ট করার জন্য বিভিন্ন অনলাইন পোর্টালে মতস্যজীবিদের ত্রাণের চাল নেতাদের পেটে চেয়ারম্যান কিছুই জানে না, জেলেদের ত্রাণের চাল মেরে দিল নেতারা জেলেদের অভিযোগ শিরোনামে নানা প্রপাগন্ডা ছড়াচ্ছেন।

এ সব প্রপাগন্ডার তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছেন চরগিরিশ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আক্তাজ্জামান তালুকদার মিল্টন, সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুল মালেক (বি এস-সি), ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি সফিকুল ইসলাম (সুমন) সাধারণ সম্পাদক সাহীন আলম, কৃষক লীগের সভাপতি সুবাদ আলী মন্ডল,ইউ পি সচিব খোরশেদ আলম, ট্যাগ অফিসার আবু মোতালেব, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি হাসানুজ্জামান তরফদার (অনিক), সাধারণ সম্পাদক কামরুল হাসান প্রমুখ সহ দলীয় অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা এবং সচেতন মহল।


  • 505
    Shares

এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button