আন্তর্জাতিক

পশ্চিমবঙ্গের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম ‘গ্রেপ্তার’

  • 4
    Shares

সোমবার সকালে বিজেপি সরকারের কেন্দ্রীয় বাহিনী বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করেছে কলকাতার সাবেক মেয়র, তৃণমূলের বিধায়ক এবং মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমকে।

ভারতীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, এদিন চেতলার বাড়ি ঘিরে ফেলে কেন্দ্রীয় বাহিনী। সকাল নয়টা নাগাদ তাকে বাড়ি থেকে নিয়ে যায় সিবিআই।

বাড়ি থেকে বেরোনোর সময় ফিরহাদ বলেন, ‘নারদ মামলায় আমাকে গ্রেপ্তার করেছে সিবিআই। বিনা নোটিশে আমাকে গ্রেপ্তার করা হল।’

ফিরহাদ আরও বলেন, ‘স্পিকারের অনুমতি ছাড়াই আমাকে গ্রেপ্তার করা হল। আদালতে দেখে নেব।’

সোমবার সকালেই আলোচিত রাজনীতিবিদ মদন মিত্র এবং শোভন চট্টোপাধ্যায়কে নিজাম প্যালেসে নিয়ে যাওয়া হয়। নিজাম প্যালেসে আনা হয় রাজ্যের পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়কেও।

যদিও সিবিআই দাবি করছে, গ্রেপ্তার করা হয়নি ফিরহাদকে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তার সঙ্গে আরও ৪ জনকেও আনা হয়েছে।

সোমবার সকালে এই চারজনকে একেবারে আচমকা তুলে আনা হয়।

কিছুদিন আগেই নারদ মামলায় চার্জশিট গঠনের অনুমতি দিয়েছিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। সেই মামলার সূত্রেই সিবিআই কর্মকর্তাদের হানা।

ফিরহাদকে বাড়ির বাইরে নিতেই তার সমর্থকেরা স্লোগান দিতে থাকেন। তাদের সঙ্গে কেন্দ্রীয় বাহিনীর বচসাও হয়। পরে ফিরহাদ তাদের শান্ত করেন।

২০১৬ সালের মার্চে রাজ্য বিধানসভার নির্বাচনের প্রাক্কালে তৃণমূল নেতা-মন্ত্রীদের ঘুষ নেওয়ার এক কেলেঙ্কারি ফাঁস হয়। তা নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশে ২০১৭ সালে মার্চে মামলার তদন্তের ভার দেওয়া হয় ভারতের কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা সিবিআইর হাতে। যদিও ২০১৬ সালে এই নারদ স্টিং অপারেশনের তথ্য ফাঁস হওয়ার পর প্রথম এ মামলার তদন্তভার গ্রহণ করে ভারতের এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট বা ইডি। তারপর এটি নিয়ে অনেক আলোচনা হয়েছে।


  • 4
    Shares

এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন