আন্তর্জাতিক

গাজায় সবচেয়ে রক্তক্ষয়ী দিন ছিল রোববার, নিহত ৪২


ফিলিস্তিনের গাজায় এক সপ্তাহের ইসরায়েলি বিমান হামলায় গতকাল রোববার সবচেয়ে রক্তক্ষয়ী দিন গেছে। এদিন ১০টি শিশু, ১৬ জন নারীসহ ৪২ জনকে হত্যা করা হয়েছে। সপ্তাহজুড়ে ইসরায়েলি হামলায় মোট নিহত ২০০ ছাড়িয়েছে। ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এসব তথ্য জানিয়েছে।

রোববার মধ্যরাতেরও পরে গাজার একটি ব্যস্ততম রাস্তার পাশের অন্তত তিনটি ভবনে বোমা হামলা চালায় ইসরায়েল। এতে ওই ভবনগুলো ধসে পড়ে এবং এর নিচে চাপা পড়ে অনেক মানুষের নির্মম মৃত্যু হয়।

ইসরায়েলের দাবি, গাজায় মোট নিহতের মধ্যে কয়েক ডজন সন্ত্রাসী রয়েছে। এক সপ্তাহে ফিলিস্তিনি সশস্ত্র গোষ্ঠী তিন হাজারের বেশি রকেট ছুড়েছে। গতকাল রোববার দুপুর থেকে শুরু করে রাতভর হামাস ইসরায়েলে রকেট ছুড়েছে বলে দাবি করেছে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী। ইসরায়েল বলছে, হামাসের হামলায় দুই শিশুসহ ১০ জন নিহত হয়েছে।

সোমবার সকালেও গাজার বিভিন্ন এলাকায় ৮০টি বিমান হামলা চালানো হয়। বিবিসির খবরে বলা হয়, এর আগে হামাস ইসরায়েলের দক্ষিণাঞ্চলের এলাকা লক্ষ্য করে বেশকিছু রকেট ছোড়ে।

এদিকে, জাতিসংঘ ইসরায়েলের প্রতি সত্বর হামলা বন্ধের আহ্বান জানিয়েছে। হামলা অব্যহত থাকলে গাজায় জ্বালানি সংকটের ফলে যেকোনো সময় হাসপাতালগুলোর বিদ্যুৎ চলে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করছে জাতিসংঘ।

জাতিসংঘের মধ্যপ্রাচ্য শান্তি প্রক্রিয়ার ডেপুটি স্পেশাল কো-অর্ডিনেটর লিন হ্যাস্টিংস বিবিসিকে বলেছেন, তিনি গাজায় জরুরি ভিত্তিতে জ্বালানি পাঠানোর জন্য ইসরায়েলের নিকট অনুমতি চেয়েছিলেন। কিন্তু তাঁকে বলা হয়েছে, এখন এটি নিরাপদ হবে না।

হামাস নিয়ন্ত্রিত স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে বিবিসি জানায়, এ পর্যন্ত গাজা উপত্যকায় মোট ১৮৮ জন নিহত হয়েছে। এদের মধ্যে ৫৫টি শিশু ও ৩৩ জন নারী রয়েছে। এ ছাড়া মোট এক হাজার ২৩০ জন আহত হয়েছে।

সম্প্রতি ইসরায়েল ফিলিস্তিনের জেরুসালেমে আল জাররাহ এলাকা দখলে নেওয়ার প্রচেষ্টা চালায়। এ নিয়ে সেখানকার ফিলিস্তিনি বাসিন্দাদের মধ্যে থেমে থেমে উত্তেজনা চলে আসছিল। গত ৭ মে পবিত্র মাহে রমজানের শেষ জুমা অর্থাৎ জুমাতুল বিদা আদায় করতে বিপুল মুসল্লি আল-আকসা মসজিদে সমবেত হলে ইসরায়েলি বাহিনী তাদের ওপর চড়াও হয়। মসজিদে ঢুকে মুসল্লিদের লক্ষ্য করে রাবার বুলেট ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে ইসরায়েলি বাহিনী।

এর দুদিন পর শবে কদরেও আল-আকাসা মসজিদে ইসরায়েলি বাহিনীর সঙ্গে মুসল্লিদের সংঘর্ষ হয়। এর প্রতিবাদে গাজা সীমান্তে বিক্ষোভ শুরু হয়। পরে গত সোমবার (১০ মে) থেকে গাজায় বিমান হামলা শুরু করে ইসরায়েল।


এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন