দেশজুড়ে

পাবনা পৌর সদরের দিলালপুর মহল্লার একই পরিবারের তিনজনকে হত্যা

  • 13
    Shares

মামুনুর রহমান,জেলা প্রতিনিধি,পাবনা: শুক্রবার (৫ জুন) দুপুরে স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে ঘটনা স্থলে গিয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে। ওই বাসা বাড়ি থেকে বাবা, মা ও মেয়ের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহতরা হলো- রাকাবের অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল জব্বার (৬০) তার স্ত্রী ছুম্মা খাতুন (৫০) ও মেয়ে সানজিদা খাতুন (২৪)। স্থানীয়রা জানান, এই বাড়ি থেকে পচা দুর্গন্ধ বাহিরে আসছিলো।

স্থানীয়দের সন্দেহ হলে পুলিশকে খবর দেয় তারা। পুলিশ ওই বাড়িতে গিয়ে বাড়ির চারপাশে ঘুরে জানালা দিয়ে ভেতরে মরদেহ দেখতে পায় তারা। পাবনা জেলা পুলিশ সুপার শেখ রফিকুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে এটি ডাকাতির ঘটনা হতে পারে। ডাকাতরা ডাকাতি করে তাদেরকে কুপিয়ে ও শ্বাসরোধ করে হত্যার পর বাড়ির সব মালামাল লুট করে নিয়ে যায়।

তবে ঘটনাটি দুই থেকে তিন দিন আগে ঘটেছে বলে ধারনা করছে পুলিশ। পুলিশের দেয়া সর্বশেষ তথ্যমতে রাজশাহী থেকে ক্রাইম ব্রাঞ্চের বিশেষ টিম ডাকা হয়েছে। তারা আসার পরে ওই মৃতদেহ বাহিরে আনা হবে জানিয়েছেন পুলিশ। ঘটনাস্থলে পাবনার পুলিশ সুপারসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন সকল কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

সর্বশেষ তথ্য মতে বিকেল সারে তিনটার দিকে বাড়ির মূল ফটকের তালা ভেঙ্গে পুলিশের পাবনা ক্রাইম ব্রাঞ্চের সদস্যরা বাড়ির ভেতরে প্রবেশ করে। দোতলা বিশ্লিষ্ট এই বাড়িতে ওই কৃষি কর্মকর্তা বছর তিন হলো ভাড়া রয়েছেন বলে জানা গেছে। ওই বাড়িতে আর কোন ভাড়াটিয়া বর্তমানে নেই। বাড়ির মূল মালিক দেশের বাহিরে থাকেন বলে স্থানীয়দের মাধ্যমে জানা গেছে। এই ঘটনায় স্থানীয় সাধারণ মানুষদের মধ্যে বেশ আতঙ্ক বিরাজ করছে।

হত্যাকাণ্ডের শিকার ওই বাড়ির সদস্য আব্দুল জব্বার রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের অবসর প্রাপ্ত কর্মকর্তা ছিলেন। তার স্ত্রী ছুম্মা খাতুন গৃহিণী ও একটি পালিত মেয়ে সাজজিদা খাতুন।


  • 13
    Shares

এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button