রংপুর

চার বিধবা নারী শ্রমিকদের খোঁজ নিলেন জেলা প্রশাসক

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা: গাইবান্ধার জেলা প্রশাসক গৌতম চন্দ্র পাল সুন্দরগঞ্জের একটি প্রশিক্ষণ শেষে গাইবান্ধা ফেরার পথে তার দৃষ্টিতে পড়ল জমিতে কর্মরত ৪ জন নারী শ্রমিকের।

গাড়ী দাড়িয়ে কিছুটা জমির আইল দিয়ে হেটে তাদের কাছে গেলেন তিনি। কিছুটা লাজুক অভিব্যাক্তিতে তারা দেখছেন। পরিচয় দিলেন তাদের আশ্বস্ত করলেন, তাদের কথা শুনলেন।

গোলেনুর,কবিতন,আমেনা ও মরিয়ম তারা খোলাহাটি ফারাজীপাড়া গ্রামের বাসিন্দা। কৃষি শ্রমিক হিসেবে কাজ করে দৈনিক ২০০/- টাকা মজুরি পান। পুরুষ শ্রমিকরা ৩০০/৩৫০ টাকা পান মর্মে তাদেও ক্ষোভ আক্ষেভের সহিত জানালেন। কেন পুরুষরা বেশি মজুরি পান এ প্রশ্নের উত্তরে তারা বলেন “তারা তো পুরুষ”। নারীদের কাজের মান পর্যবেক্ষনে প্রতীয়মান হলো যে, মজুরি বৈষম্য যৌক্তিক নয়।

তাদের পরিবার, সস্তানদের লেখাপড়া, বাল্যবিয়ে না দেয়া ইত্যাদি বিষয়ে কথা বললেন। তারা ৪ জন ই বিধবা। তাদেরকে ভাতার দেয়ার বিষয়ে সহযোগিতার আশ্বাস দেন।কোন অসুবিধা হলে যোগাযোগ করার জন্য ভিজিটিং কার্ড দেন।তাদের দুখের মুখে অনন্দেও হাসি দেখে জেলা প্রশাসককে মুগ্ধ হয়েছেন।

কৃষিতে নারী শ্রমিকদের অবদান উল্লেখযোগ্য। কাজ করে তারা খুশি ও গর্বিত।এগিয়ে যাচ্ছে আমাদের দের সমৃদ্ধির দিকে। তিনি নারী কৃষি শ্রমিকদেরকে স্যালুট জানান।

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.