মহামারী চলাকালে যেভাবে মাস্ক পরবেন

0
21

নভেল করোনাভাইরাস মহামারী শুরুর পর থেকে মাস্ক ব্যবহার করা মানুষের জীবনের নিত্যদিনের বাস্তবতা হয়ে দাঁড়িয়েছে। কভিড-১৯ মোকাবেলায় এন-৯৫ মাস্ক সবচেয়ে কার্যকরী হলেও প্রথম থেকেই এ মাস্কের খুব সংকট চলছে। তাই সুস্থ মানুষদের এ ধরনের মাস্ক না কিনে কাপড়ের মাস্ক কেনার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। তবে মাস্ক যেটাই ব্যবহার করেন না কেন, সেটা যথাযথ ব্যবহার করতে না পারলে খুব বেশি কাজে দেবে না।

জনস হপকিনস বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যক্তিগত সুরক্ষা বিষয়ে অধ্যয়নরত পেশাগত ও জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ কার্স্টেন কোহলার বলেন, এগুলো কোনোটাই পুরোপুরি কার্যকর না। তবে এগুলো ভাইরাসের ছড়িয়ে পড়া হ্রাস করতে সহায়তা করে, বিশেষ করে যারা করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়েও লক্ষণহীন থাকেন।

মাস্ক পরার ক্ষেত্রে কিছু বিষয় অবশ্যই মনে রাখতে হবে। মাস্ক এমনভাবে পরতে হবে, যেন আপনার নাক ও মুখ পুরোপুরি ঢেকে যায়। নাকের দুই পাশে ফাঁকা অংশটা মাস্কের ওপর চাপ দিয়ে ঢেকে দিন।

যাদের মুখে বড় দাড়ি রয়েছে, তাদের ক্ষেত্রে কি অতিরিক্ত সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত? কার্স্টেন কোহলার অবশ্য তেমনটা মনে করেন না। তিনি বলেন, সবচেয়ে বড় কথা হলো, যেহেতু আমরা নাক দিয়ে শ্বাস-প্রশ্বাস নিয়ে থাকি, সেহেতু নাকের চারপাশে সুরক্ষা নিশ্চিত করা। যদি মাস্কটি সঠিকভাবে পরা হয়ে থাকে, তবে চারপাশে বের হওয়ার পরিবর্তে বায়ু মাস্কের মধ্যে দিয়ে চলে যাবে। তাই দাড়ি থাকা বা না থাকার ক্ষেত্রে বড় ধরনের পার্থক্য নেই।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) মতে, আপনি যখন শ্বাস নিতে নিতে মাস্কের ভেতরে খুব বেশি স্যাঁতসেঁতে হয়ে যাবে, তখন মাস্ক পরিবর্তন করা উচিত। কয়েক ঘণ্টা পরে থাকার পর মাস্কের ভেতরে স্যাঁতসেঁতে হয়ে গেলে সেটা খোলা জায়গায় ফেলে না রেখে কাগজের প্যাকেটে সংরক্ষণ করুন। এতে করে মাস্কটি আপনার হাতের স্পর্শ থেকে দূরে থাকবে এবং কাগজের ব্যাগটি সেটাকে শুকিয়ে যেতে সহায়তা করবে। পুনর্ব্যবহারযোগ্য কাপড়ের মাস্ক হলে দ্রুত সেটা ডিটারজেন্ট দিয়ে পরিষ্কার করুন, কাগজের প্যাকেটে দুই থেকে তিনদিন রেখে বা রোদে শুকিয়েও আপনি সেটা পুনর্ব্যবহার করতে পারবেন।

অনেকেই নিয়মিত চশমা ব্যবহার করেন। সেক্ষেত্রে চশমা ও মাস্ক একসঙ্গে পরতে সংগ্রাম করতে হয়। কারণ বেশির ভাগ মাস্ক খুব ভালোভাবে ফিট না হওয়ায় মাস্কের ভেতরের বাতাস চশমার ভেতরে চলে যেতে পারে। মাস্কটি যদি আপনার নাকের সঙ্গে আঁটসাঁট হয়, তবে বায়ু সেটার ওপর দিয়ে বের হবে না। এজন্য আপনি নাকের ওপরের অংশে এক টুকরো টিস্যু রেখে এরপর মাস্ক পরে, তার ওপর চশমা পরুন। আবার আপনি মাস্কের ওপরের অংশে, নাকের দুই পাশে দুই টুকরো টেপ লাগিয়ে দিতে পারেন। তাহলে আর বাতাস ওপর দিয়ে বের হবে না।

সায়েন্টিফিক আমেরিকান