দেশজুড়ে

রাজারহাটে স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যা, ঘাতক গ্রেফতার

  • 64
    Shares

সরকার অরুণ যদু,রাজারহাট, কুড়িগ্রাম: কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার চাকিরপাশা ইউনিয়নে শ^শুর বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে পার্শ্ববর্তী নির্জন জায়গায় গলা কেটে ও পেটে ছুরিকাঘাতে এক গৃহবধূকে হত্যার ঘটনায় ঘাতক স্বামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে উপজেলার চাকিরপাশা ইউনিয়নের রতিরাম কোমলওঁঝা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় জড়িত থাকায় বুধবার ভোর রাতে অভিযুক্ত স্বামী হাবিবুর রহমানকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
রাজারহাট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রাজু সরকার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নিহত গৃহবধূর নাম বিউটি বেগম (২২)। তিনি উপজেলার চাকিরপাশা ইউনিয়নের রতিরাম কোমলওঁঝা গ্রামের বাশারত উল্লাহর কন্যা এবং অভিযুক্ত স্বামী হাবিবুর রহমান (২৫) উপজেলার নাজিমখাঁন ইউনিয়নের মানাবাড়ি কালিরহাট গ্রামের আব্দুল মতিনের ছেলে বলে জানা গেছে। তাদের ঘরে ৪ বছর বয়সি একটি সন্তান রয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, দাম্পত্য কলহের জেরে হাবিবুর রহমানের স্ত্রী বিউটি বেগম দীর্ঘদিন ধরে তার বাবার বাড়িতে অবস্থান করছিলেন। মঙ্গলবার রাতে অভিযুক্ত স্বামী হাবিবুর রহমান তার শশুর বাড়িতে এসে পরিকল্পিতভাবে তার স্ত্রীকে ফুঁসলিয়ে বাইরে ডেকে নিয়ে যায় এবং ছুরি দিয়ে তার পেটে ও গলায় আঘাত করে তাকে হত্যা করে পালিয়ে যায়।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মরদেহ উদ্ধার করে এবং রাতেই অভিযান চালিয়ে নাজিমখাঁন থেকে অভিযুক্ত হাবিবুর রহমানকে গ্রেফতার করে। পরে তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ছুরি উদ্ধার করে পুলিশ। এঘটনায় বুধবার বিউটি বেগমের পিতা বাশারত উল্লাহ বাদী হয়ে রাজারহাট থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

রাজারহাট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রাজু সরকার জানান, কুড়িগ্রাম পুলিশ সুপারের নির্দেশনা অনুযায়ী ঘটনার ৮ঘন্টার মধ্যে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত উপজেলার নাজিমখাঁন এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছি। পরকীয়া প্রেম নিয়ে দাম্পত্য কলহের কারণে এ হত্যাকান্ড ঘটেছে বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছে অভিযুক্ত হাবিবুর।


  • 64
    Shares

এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button