খেলাধুলা

ট্রেন্টব্রিজে জয়ের সুবাস পেতে শুরু করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা

প্রথম ইনিংসে স্বাগতিক ইংল্যান্ড করেছিল ২০৫ রান সবকটি উইকেট হারিয়ে।  নিজেদের দ্বিতীয় ও টেস্টের চতুর্থ ইনিংসে জয়ের জন্য দরকার ৪৭৪ রান।  হাতে অবশ্য সময় আছে আরও দুই দিন।

দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিস যখন নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ৩৪৩ রান করে ইনিংস ঘোষণা করেন তখন দিনের খেলা বাকি মাত্র ৪ ওভার।  ব্যাট থেকে কোন ব্যাটসম্যান রান না পেলেও ওইসময়ে কোন উইকেটও পতন হয়নি।  টেস্ট বাঁচাতেক ইংলিশদের সামনে কতটা সুযোগ আছে? ক্রিকেটীয় বাস্তবতা বলছে, ইংল্যান্ডের জয়ের সম্ভাবনাও শূন্য!

লর্ডসে লজ্জাজনক হারের পর দারুন ভাবে ফিরেছেন প্রোটিয়ারা।  ট্রেন্ট ব্রিজ টেস্টের তিন দিন শেষেই জয়ের পথ তৈরি করে ফেলেছে দক্ষিণ আফ্রিকা।  জয়ের জন্য শেষ ইনিংসে ইংল্যান্ডের লক্ষ্য ৪৭৪ রান।  সময় আছে দুদিন, কিন্তু করতে হবে আরও ৪৭৩ রান।  ক্রিকেটের ইতিহাস বা এই ম্যাচের বাস্তবতা, কোনোটিই ইংলিশদের সাহস দেখাবে না জয়ের।  গত ১০ বছরে যে মাঠে হারেনি ইংল্যান্ড, সেখানেই এবার স্বাগতিকরা হারের শঙ্কায়।

দক্ষিণ আফ্রিকা দিন শুরু করেছিল ১ উইকেটে ৭৫ রান নিয়ে।  আগের দিনের অপরাজিত দুই ব্যাটসম্যান এলগার ও আমলা দলকে টানেন আরও অনেকটা।  দ্বিতীয় উইকেটে দুজনে গড়েছেন ১৩৫ রানের জুটি।

দুজনই আউট হয়েছেন সেঞ্চুরির সম্ভাবনা জাগিয়ে।  ৮০ রানে এলগারকে ফিরিয়ে জুটি ভেঙেছেন দারুণ বোলিং করা বেন স্টোকস।

আমলা এদিন ছিলেন অচেনা চেহারায়।  সহজাত সব স্ট্রোকের ফুলঝুরি ছিল না, ছিল না দৃষ্টিনন্দন সব শটের মহড়া বরং উইকেটে পড়ে থেকেছেন।  প্রতিপক্ষকে ক্লান্ত করে বাড়িয়েছেন রান।  আমলার মানে তা দৃষ্টি সুখকর না হলেও দলের প্রয়োজনে দারুণ কার্যকর।  প্রায় ৫ ঘণ্টায় ৮৭ রান করে এলবিডব্লিউ হয়েছেন লিয়াম ডসনের বাঁহাতি স্পিনে।

এরপর দক্ষিণ আফ্রিকাকে টেনেছেন অধিনায়ক ফাফ দু প্লেসি।  ৬৩ করেছেন ৯ চারে।  শেষ দিকে ৩ চার ও ২ ছক্কায় ৪২ রান করেছেন ভার্নন ফিল্যান্ডার।  দিনের শেষ ভাগে ইনিংস ছেড়ে দেয় দক্ষিণ আফ্রিকা।  ৪ উইকেট নিয়েছেন মইন আলি, স্টোকস দুটি।  তবে তাদের কাছ থেকে ব্যাটিংয়েও দারুণ কিছু চাইবে দল।  চাইবে সব ব্যাটসম্যানের কাছেই।  এদিন শেষ বিকেল কাটাতে পারলেও আসল পরীক্ষা তো চতুর্থ দিনেই!

Comments

comments

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.