দক্ষিণ সিটিতে দুর্নীতির লেশমাত্র রাখবো না: মেয়র তাপস

0
8

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনে (ডিএসসিসি) দুর্নীতির লেশমাত্র না রাখার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।

সিটি কর্পোরেশনের দ্বিতীয় পরিষদের প্রথম কর্পোরেশন সভায় মেয়র তাপস নিজেকে শহীদ এবং মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, ‘কর্পোরেশনের রন্ধ্রে রন্ধ্রে দুর্নীতি রয়েছে। এসব দুর্নীতিকে আমি প্রশ্রয় দেবো না এবং দুর্নীতির লেশমাত্র এই সংস্থায় রাখবো না।’ আজ মঙ্গলবার নগর ভবনের মেয়র মোহাম্মদ হানিফ মিলনায়তনে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়।

কর্পোরেশন সভায় অর্থ ও সংস্থাপন বিষয়ক স্থায়ী কমিটি গঠন করা হয়। এ কমিটিকে মেয়র নির্দিষ্ট দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি কোন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে দুর্নীতি বিষয়ক বা দায়িত্ব পালনে কোন গাফিলতির অভিযোগ পেলে তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ প্রদানের অনুরোধ করেন। কমিটির সুপারিশের প্রেক্ষিতে তাৎক্ষণিক কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে কর্মকর্তাদের তিনি পুনরায় হুঁশিয়ার করে দেন।

কর্পোরেশনের কাউন্সিলরদের পথচলার প্রধান সঙ্গী হিসেবে উল্লেখ করে মেয়র বলেন, ‘আজ থেকে আমাদের নবযাত্রা শুরু হলো। ঢাকাবাসীর কল্যাণে দেয়া ওয়াদা পূরণের লক্ষ্যে আমরা কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করছি। ইনশাল্লাহ আমাদের কার্যক্রমের মাধ্যমেই ঢাকাবাসী এর প্রতিফলন দেখতে পাবেন।’

তিনি বলেন, এখন থেকে কর্পোরেশনের সকল কাজে কাউন্সিলরদের সম্পৃক্ত করা হবে এবং তাদেরকে সঙ্গে নিয়েই ঢাকাবাসীর কল্যাণে সব কিছু করা হবে, সব সিদ্ধান্ত নেয়া হবে এবং সেগুলো বাস্তবায়ন করা হবে।

শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, ‘বর্তমান করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলা করে প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত বাংলাদেশ গড়ার অভিযাত্রায় আমরা উন্নত ঢাকা গড়ার ভিত্তি রচনা করে যাবো। এজন্য বছরে ৩৬৫ দিন ১২ মাস ২৪ ঘন্টা আমাদের কাজ করে যেতে হবে। ঢাকাবাসীর কাছে আমাদের যে দায়বদ্ধতা তা সবাই নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার সাথে করলে সব সংকট মোকাবেলা করেই আমরা কর্পোরেশনকে ঢাকাবাসীর আস্থা ও গর্বের সংগঠনে পরিণত করতে সক্ষম হবো।’

ঢাকাবাসীর সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধিকল্পে যৌক্তিকভাবে নতুন নতুন আয়ের খাত সৃষ্টির ঘোষণা দিয়ে তিনি বলেন, নতুন নতুন আয়ের খাত সৃষ্টি করা হলেও নাগরিকদের উপর কোন কর বৃদ্ধি করা হবে না।

সভার শুরুতেই মেয়র শেখ তাপস জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, জাতীয় চার নেতা, ১৫ আগষ্টে শহীদ তার প্রয়াত পিতা শেখ ফজলুল হক মনি, মা আরজু মনিসহ সকল শহীদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানান। তাঁদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

পরে মেয়র মশক নিয়ন্ত্রণ, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, যানজট, জলাবদ্ধতা নিরসন, রাস্তাঘাট উন্নয়ন ও অবৈধ দখলমুক্তকরন ইত্যাদি কাজে কাউন্সিলরদের সক্রিয় সহায়তা কামনা করেন।

সভায় মেয়র উন্নয়ন কাজে কাউন্সিলরদের সম্পৃক্ত করা এবং তাদের সরাসরি সম্পৃক্ততার ব্যাপারে বেশ কিছু বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন।

তিনি বলেন, এখন থেকে প্রতি মাসের প্রথম সপ্তাহে বোর্ড মিটিং অনুষ্ঠিত হবে এবং কাউন্সিলররা সপ্তাহে একদিন সমস্যা নিরসনে তার সাথে আলাপ করতে পারবেন। এজন্য সপ্তাহের একটি দিন ধার্য করে দেবেন বলেও কাউন্সিলরদের আশ্বস্ত করেন।

নব নির্বাচিত কাউন্সিলররা মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপসকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান এবং তাদের প্রত্যাশা মাফিক বিভিন্ন সমস্যা নিরসনে আশ্বস্ত করায় তার প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।