মহাভারত থেকে শিক্ষণীয় চারটি শিক্ষা

0
134

রনজিত কুমার পাল (বাবু): ১. পুতনা যখন কৃষ্ণকে দুধ পান করাতে এসেছেন মেরে ফেলার উদ্দেশ্যে, কৃষ্ণ ও দুধ প্রাণ করতে গিয়ে তার প্রান বায়ু সহ বের করে ফেলছে, পুতনা যখন বলছিল ছেড়ে দাও আমায়, ছেড়ে দাও আমায় কিন্তু কৃষ্ণ ছাড়ে নাই, এখান থেকে শিক্ষা হচ্ছে, কৃষ্ণের কাছে কেউ আসলে কৃষ্ণ তাকে যেতে দে না । অামরা অনেকেই অনেক উদ্দেশ্য নিয়ে ভক্তি জীবনে আসি। কিন্তু কৃষ্ণ আমাদের যেতে দে না।

২. কৃষ্ণকে নিয়ে যখন পুতনা বাইরে বের হয়ে গেছে, তখন সকল বৃন্দাবন বাসিও কৃষ্ণ কৃষ্ণ তার পিছে পিছে বের হয়ে ছিল.. কিন্তু বৃন্দাবনে অনেক গর্ত থাকার সত্ত্বেও তারা কেউ পড়ে যায় নাই।কারন তাদের ফোকাস ছিল কৃষ্ণ। অন্য কিছু না। এখান থেকে শিক্ষা হচ্ছে আমরা প্রথমে যখন কৃষ্ণকে লাভ করার উদ্দেশ্য নিয়ে ভক্তি জীবনে আসি। কিন্তু পরবর্তীতে তা অন্য কিছু লাভ করার উদ্দেশ্যে চলে যায়। এটা হলে চলবে না। ফোকাস এ কৃষ্ণ কে রাখতে হবে।

৩. দুর্যোধন ও অর্জুন যখন কৃষ্ণকে কে নিবে তা নিয়ে কৃষ্ণের কাছে গেল তখন দুর্যোধন কৃষ্ণের নারায়ণী সেনা দেখি আকৃষ্ট হয়ে পড়ে। সে বলতে লাগল কৃষ্ণকে নিয়ে আমার কি হবে। তো এর শিক্ষা হচ্ছে কৃষ্ণকে লাভ করতে এসে আমরা অন্য কিছুর প্রতি আসক্ত হয়ে পড়ি। কৃষ্ণকে ছাড়া অন্য কিছুর প্রতি আকৃষ্ট হওয় যাবে না…

৪. যুদ্ধে অশ্বত্থামা যখন নারায়নী অস্থ প্রয়োগ করলেন তখন কৃষ্ণ সবাইকে বলছেন যে সবাই রথ থেকে নেমে প্রণাম করতে। কিন্তু ভীম বলছেন না আমি যুদ্ধ করব আমি নামব না.. তখন কৃষ্ণ বলছেন কিছু কিছু সময় নত হতে হয়। সেইরকম ভক্তি জীবনেও কিছু কিছু সময় হেরে গিয়েও জিততে হয়।