মির্জাপুরে নিখোঁজের ৮ দিন পর বৃদ্ধর লাশ উদ্ধার

0
38

রাব্বি ইসলাম, স্টাফ রিপোর্টারঃ টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে নিখোঁজের ৮ দিন পর এক বৃদ্ধের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার (০৩মার্চ) সকালে উপজেলার মহেড়া ইউনিয়নের দেওভোগ গ্রামের কুমুল্লি বিল থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। নিহত ব্যক্তি উপজেলার মহেড়া ইউনিয়নের দেওভোগ উত্তরপাড়া গ্রামের মৃত কজু মোল্লার ছেলে হযরত মোল্লা (৬০)।

পুলিশ ও নিহতের পরিবারের ভাষ্য, গত মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) দিনের বেলায় দেওভোগ গ্রামের কুমুল্লি বিলের একটি পুকুরের মাছ ধরার লক্ষ্যে পুকুরটি সেঁচে নিহত হযরত মোল্লা ও তার ছোট ছেলে সুজন মোল্লা। পরে বাবা-ছেলে দুজনে রাতে পুকুর পাহাড়া দিতে যায়। এক পর্যায়ে রাত ১টার দিকে কিছু মাছ শুকনা জায়গায় আসলে সেগুলো ধরে ছেলেকে ওইস্থানে রেখে বাড়িতে দিতে যায় হযরত। অনেক্ষণ সময় পেরিয়ে যাওয়ার পরও হযরত পুকুরের কাছে ফিরে না আসায় তার ছেলে সুজনও বাড়িতে চলে যায়। পরদিন সকালে অনেক খোঁজাখোজির পরও তাকে না পেয়ে মির্জাপুর থানায় একটি অভিযোগ করেন নিহতের দ্বিতীয় পক্ষের স্ত্রী মনি বেগম। অভিযোগের পর বিষয়টি ক্ষতিয়ে তেমন কোনো তথ্যও পায়নি পুলিশ। ঘটনার ৮দিন পেরিয়ে যাওয়ার পর বুধবার সকাল ০৯টার দিকে নিহতের আপন ভাতিজা মোস্তফা বিলের মধ্যে একটি লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। পরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে হযরতের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

এ ব্যাপারে নিহতের ছোট ছেলে সুজন সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করে বলেন, আমার সৎ মার সাথে দীর্ঘদিন যাবৎ আমাদের জমি-জমা নিয়ে বিরোধ। ঝগড়া বিবাদের কারণে আমি বাড়িতেও থাকতাম না তেমনটা। আমার মার মৃত্যুর ৩ মাস পরই বাবা আরেকটি বিয়ে করেন। কিন্তু যাকে মা ভাবছি সেই একসময় আমাদের বিরোধিতা করেন। ধারণা করে বলেন, তার বাবাকে হত্যা করা হয়েছে! উল্লেখ করেন থানায় অভিযোগ প্রক্রিয়াধীন।

এ ব্যাপারে মির্জাপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. গিয়াস উদ্দিন বলেন, সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে নিহতের লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল শেষে মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহতের মাথায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট পেলেই ঘটনার রহস্য উদঘাটন করা সম্ভব হবে এবং অভিযোগ অনুযায়ী যথাযথ আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

Author