সকাল ৯:১৯ বৃহস্পতিবার ২২শে আগস্ট, ২০১৯ ইং

ব্রেকিং নিউজ:

একদিনেই সৌদি আরব ছাড়লেন ১ হাজারের বেশি সৌদি নারী! | কিশোরকে অ'পহ'রণ করে ৪০ দিন যৌ'নদা'স হিসেবে ব্যবহার ৩৮ বছরের নারীর | কাতারে নিজেদের বিপদ নিজেরাই ডেকে আনছেন বাংলাদেশিরা | অল্পের জন্য বেঁচে গেলো তিন ক্রিকেটারের! | সরকারি জমি দখলকে ফৌজদারি কার্যবিধির অধীনে বিচারের আইন হচ্ছে: ভূমিমন্ত্রী | ইমরান খানের সঙ্গে দেখা করতে চান বিল গেটস | চীনের সঙ্গে যুদ্ধে কয়েক ঘণ্টায় পরাজিত হবে যুক্তরাষ্ট্র! | ভারতের সাবেক অর্থমন্ত্রী চিদম্বরম গ্রেপ্তার | রামপালে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহত শহীদদের স্বরনে শোক সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত | মানুষের শরীরে প্রতিস্থাপিত হবে শূকরের হার্ট ও কিডনি! |

চট্টগ্রামে শিশু দিয়ে একি ভয়ঙ্কর কাজ করানো হচ্ছে !

নিউজ ডেস্ক | তরঙ্গ নিউজ .কম
আপডেট : জুলাই ১৪, ২০১৭ , ৫:২২ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : চট্টগ্রাম
পোস্টটি শেয়ার করুন

চট্টগ্রামের মেহেদীবাগ এলাকার ম্যাক্স হাসপাতালের সামনে ক্রিমসন ক্লোভার নামের একটি বিল্ডিংয়ের নবম তলার বাইরের বারান্দার গ্লাস পরিষ্কার করতে দেখা গেছে শিশুকে।  ওই বাসার গৃহকর্তা কীভাবে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে একজন শিশুকে দিয়ে এই কাজ করিয়েছে, এই নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনা হচ্ছে।

১৪ জুলাই শুক্রবার সকালে ফেসবুকে রাদবি রেজা নামের একজন এই ভিডিও এবং কয়েকটি ছবি ফেসবুকে পোস্ট দেন।

ভিডিওতে দেখা গেছে, দু’টি শিশু ৯ম তলার বারান্দার গ্লাস পরিস্কার করছিল।  শিশুদের মধ্যে যে বয়সে একটু বড়, সে ভেতর থেকে পরিস্কার করছিল আর ছোট শিশুটি বারান্দার বাইরে কার্নিশে নেমে এসে দাঁড়িয়ে ও বসে খুবই ঝুঁকিপূর্ণভাবে গ্লাসটি পরিষ্কার করছিল।  যেকোনো কারণে ওই শিশুটির পা পিছলে বড় বিপদ হতে পারত, কারণ তার আশেপাশে ধরার মতোও কিছু ছিল না।  ছিল না কোনো নিরাপত্তাব্যবস্থাও।
বাসার ছোট্ট কাজের শিশুকে দিয়ে গৃহকর্তা কীভাবে এমন ঝুঁকিপূর্ণভাবে কাজ করাতে পারলেন, তা নিয়ে বিষ্ময় প্রকাশ করেছেন অনেকে।

শিশুটি হয়তো জানেও না আরেকটু হলেই সে নয়তলা থেকে সোজা নিচে পড়ে যাবে!
আরকে রিফান নামে একজন মন্তব্য করেছেন, যিনি এই কাজটা অন্যের সন্তানকে দিয়ে করল, সে কি পারত তার নিজের সন্তানকে দিয়ে এই কাজটা করাতে? অনেক মানুষ আছেন যারা, নিজেরটা ১৬ আনা বুঝে…

ইব্রাহিম ইকবাল লিখেছেন, মানুষের বিবেক কি মরে গেছে নাকি।  যা দেখলাম তাতে বুঝতে পারলাম গৃহকর্তার জ্ঞান-বুদ্ধি হাঁটুর নিচে চলে এসেছে।

Comments

comments