বাসভাড়া ৬০% বৃদ্ধি করে জারিকৃত প্রজ্ঞাপন বাতিল করুন : ন্যাপ

0
10

করোনাভাইরাস সংকটের সময়ে বাসের ভাড়া ৮০ শতাংশ বৃদ্ধি করার বিআরটিএ’র সুপারিশের পরিপ্রেক্ষিতে সরকার কর্তৃক ৬০% বৃদ্ধি করে প্রজ্ঞাপন জারির ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ ও তীব্র নিন্দা, প্রতিবাদ ও ক্ষোভ জানিয়ে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বলেছেন, এই মুহুর্তে বাস ভাড়া বৃদ্ধি জনগণের সাথে জুলুম। করোনাকালীন এই দুর্যোগে এমনিতেই সাধারণ মানুষ অর্থকষ্টে রয়েছে। কাজ-কর্ম, ব্যবসা-বাণিজ্য, দোকানপাট, সমস্ত কিছু বন্ধ থাকায় গত ক’মাসে তাদের সংসার চালাতে হিমশিম খেতে হয়েছে। তার ওপর যদি বাস ভাড়া বৃদ্ধির মাধ্যমে জনগনের সাথে চরম প্রতারনা করা হলো। গণপরিবহনের ভাড়া বৃদ্ধির কোনো যৌক্তিক কারণ নেই।

রবিবার (৩১ মে) গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় এসব কথা বলেন।

তারা বলেন, গণপরিবহনের ভাড়া বৃদ্ধির মাধ্যমে নতুন করে সাধারণ মানুষের পকেট কাটার সরকারী এই সিদ্ধান্তই প্রমান করে তারা লুটেরা শ্রেনীর পক্ষে। সাধারণ মানুষ নিয়ে তাদের কোন ভাবনা নাই। বার বার প্রমানিত হয়েছে কোনো ধরণের সংকট বা অজুহাতে আমাদের দেশে গণপরিবহনের ভাড়া বৃদ্ধি করলেও তা আর কখনোই কমানোর কোনো নজির নেই।

নেতৃদ্বয় বলেন, ঢাকা মহানগরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে কিভাবে গণপরিবহন চলবে তা কোনোভাবেই দেশবাসীর কাছে বোধগম্য নয়। যেখানে বিআরটিএ ফিটনেসবিহীন গাড়ী চলাচলের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নিতে পারে না, সেখানে স্বাস্থ্য বিধি মেনে গাড়ি চালাতে বাধ্য করবে এটা জনগনের কাছে বিশ্বাসযোগ্য নয়।

বিবৃতিতে তারা অবিলম্বে ৬০% ভাড়া বৃদ্ধি করে জারিকৃত প্রজ্ঞাপন বাতিলের দাবী জানিয়ে বলেন, যদি সত্যিই স্বাস্থ্যবিধি মেনে কোনো পরিবহন চলে, তাহলে যদি বাস মালিকের ক্ষতি হয়, তা সরকার ভর্তুকি দিয়ে পূরণ করুক, সরকার কোনো দায়িত্ব না নিয়ে সব জনগণের কাঁধে চাপিয়ে দেবে কেন।