আক্রান্তের হারে আবারও শীর্ষে ব্রাজিল, মৃত্যু ২৭ হাজার ছুঁই ছুঁই

0
9

বিশ্বের সর্বত্র ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসের প্রকৃত রূপ দেখতে শুরু করেছে ব্রাজিল। প্রতিদিনের রেকর্ড আক্রান্তে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে ছাপিয়েই চলেছে লাতিন আমেরিকার দেশটি।

এতে এখন আক্রান্তের হারে শীর্ষে উঠেছে দেশটি। যেখানে সংক্রমিতের সংখ্যা সোয়া চার লাখ পেরিয়েছে। প্রাণহানি ২৭ হাজার ছুঁই ছুঁই। শুধু ব্রাজিল নয়, ভাইরাসটি দাপট দেখাচ্ছে সহগোত্রীয় পেরু, চিলি, এল সালভেদর, গুয়েতেমালা ও নিকারগুয়ার মতো দেশগুলাতে। যেখানে হু হু করে বাড়ছে সংক্রমণ, স্বজন হারা হচ্ছে হাজার হাজার মানুষ।

ব্রাজিলের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে বিশ্বখ্যাত জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যমতে, গত ২৪ ঘণ্টায় ২৪ হাজার ৫৩ জনের দেহে মিলেছে করোনা সংক্রমণ। এতে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৪ লাখ ৩৮ হাজার ৮১২ জনে দাঁড়িয়েছে। নতুন করে প্রাণ গেছে ১ হাজার ৬৭ জনের। এ নিয়ে লাতিন আমেরিকার দেশটিতে মৃতের সংখ্যা ২৬ হাজার ৭৬৪ জনে ঠেকেছে। যদিও এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন ১ লাখ ৯৩ হাজারের বেশি মানুষ।

এদিকে আক্রান্ত ও প্রাণহানির এমন হারে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বিশ্ব সাস্থ্য সংস্থা-ডব্লিউএইচও।

সংস্থাটির বলছে, ‘চলমান অবস্থা অব্যাহত থাকলে আগামী আগস্টের মধ্যে লাতিন আমেরিকার দেশটিতে মৃতের সংখ্যা সোয়া লাখ ছাড়িয়ে যেতে পারে। শুধু তাই, এ অঞ্চলের অন্যান্য দেশেও ভয়াবহ আকার ধারণ করতে পারে করোনা।’ খবর আল জাজিরার।

লাতিন আমেরিকার আরেক দেশ পেরুতে আক্রান্ত ১ লাখ ৪২ হাজার ছুঁই ছুঁই। প্রাণহানি ৪ হাজার ছাড়িয়েছে। চিলিতে সংক্রমিতের সংখ্যা প্রায় ৮৭ হাজারের কাছাকাছি। এখন পর্যন্ত ৮৯০ জনের মৃত্যু হয়েছে সেখানে।

এদিকে, রোগটি নিয়ন্ত্রণ করতে না পারায় চাপে রয়েছে ব্রাজিলের প্রশাসন। অভিশংসনের ঝুঁকিতে রয়েছেন স্বয়ং প্রেসিডেন্ট জাইর বলসোনারো। তবে এসবের দায় তিনি নিতে নারাজ।

মৃত্যুর সংখ্যা বাড়তে থাকার কথা বলসোনারোকে স্মরণ করিয়ে দিলে গত সোমবার সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘আমি তো মিরাকল কাজ করতে পারি না। আমাকে দিয়ে কী করাতে চান?’