দেশজুড়ে

মোংলায় ” আম্পানে” ক্ষতিগ্রস্থ ভেড়ি বাঁধ ও ঘরবাড়ী পরিদর্শন করলেন জেলা প্রশাসক


মোঃসোহেল,মোংলা প্রতিনিধিঃ মোংলায় “আম্পানে” নদীর পানিতে ভেঙ্গে যাওয়া ভেড়ি বাঁধ ও ঘরবাড়ী পরিদর্শন করেন বাগেরহাট জেলা প্রশাসক মামুনুর রশিদ ও বাগেরহাট জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী নাহিদুজ জ্জামান।

(২৬ মে) মঙ্গলবার সকালে চাদপাই ইউনিয়নের দক্ষিন কাইনমারী ও কানাইনগর পশুর নদীর তীরবর্তী ভেড়ি বাঁধ ও ঘরবাড়ী পরিদর্শন কালে বাগেরহাট জেলা প্রশাসক “মামুনুর রশিদ” ক্ষতিগ্রস্তদের খোঁজখবর সহ তাদের সাথে কথা বলেন।

এসময় সাংবাদিকদের কে জেলা প্রশাসক বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত স্থানগুলো ঘুরে দেখলাম সংশিষ্ট সকলে উপস্থিত ছিলেন এ ব্যাপারে পর্যালোচনা করে খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে ক্ষতিগ্রস্থ্য ভেড়ি বাঁধ পুনঃনির্মানের কাজ শুরু করা হবে। এ ছাড়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের সহযোগীতায় একটি স্থায়ী ভেড়ীবাধ নির্মান করার পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের বলে জানান।

জয়মনি থেকে ১০ গ্রামে প্রায় ২০ কিলোমিটার জুড়ে পশুর নদীর ভাঙ্গনে অন্তত ২০ হাজার মানুষ ঘূর্ণিঝড় “আম্পানর “জ্বলোচ্ছাসে প্লাবিত হয়ে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।

এছাড়া ঘুর্নিঝড় “আম্পানে” আঘাতে দক্ষিণ উপকূলে নদীর পাড়ের অস্থায়ী ভেরি বাদ সংলগ্ন গ্রামে জোয়ারের পানিতে বসতভিটা তলিয়ে যেতে দেখা গিয়েছে। এতে করে গ্রামবাসীরা খুব কষ্টে দিনযাপন করছে।

পরিদর্শনকালে এরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার, উপজেলা নির্বাহি অফিসার মোঃ রাহাত মান্নান, মোংলা নৌ কন্টিনজেন্ট’র লেঃ কমান্ডার আরিফুল ইসলাম, সহকারি কমিশনার (ভূমি) নয়ন কুমার রাজবংশী, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ ইকবাল হোসেন, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ নাহিদুজ্জামান, চাঁদপাই ইউপি চেয়ারম্যান মোল্লা মোঃ তারিকুল ইসলাম প্রমূখ।


এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

আরও পড়ুন
Close
Back to top button