দেশজুড়ে

ফরিদগঞ্জে রেশন কার্ডের ভাগাভাগি নিয়ে আ’লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ

  • 23
    Shares

করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় সরকারের দেওয়া রেশন কার্ডের ভাগাভাগি নিয়ে ফরিদগঞ্জে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।এসময় আওয়ামী লীগের স্থানীয় কার্যালয়সহ কয়েকটি দোকান ভাংচুর করা হয়। হামলায় উভয় গ্রুপের ১০/১২ জন আহত হয়েছেন। বুধবার বিকেলে চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার গোবিন্দপুর দক্ষিণ ইউনিয়নের গোয়ালভাওড় বাজারে এ ঘটনা ঘটে। সংবাদ পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস সূত্রে জানা গেছে, করোনাভাইরাসজনিত লকডাউন পরিস্থিতির কারণে উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নের ভুক্তভোগী লোকজনের জন্য বিশেষ রেশন কার্ডের ব্যবস্থা করা হয়েছে। সেই অনুযায়ী ফরিদগঞ্জে পৌরসভা ও ১৫টি ইউনিয়নের মোট ১১ হাজার ৩শ’ কার্ডের মাধ্যমে কার্ড প্রতি ২০ কেজি করে চাল দেওয়া হবে।

গোবিন্দপুর দক্ষিণ ইউনিয়নের সচিব আ. মান্নান জানান, তার ইউনিয়নে বিশেষ রেশন কার্ডের ৭৪৬টি কার্ড বরাদ্দ হয়। গত মঙ্গলবার ইউনিয়ন পরিষদের সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় ইউনিয়নে বরাদ্দ করা কার্ডের মধ্যে ৪০ ভাগ ইউনিয়ন পরিষদের জন্য রেখে বাকি ৬০ ভাগের মধ্যে এমপির প্রতিনিধির ৩০ ভাগ, উপজেলা চেয়ারম্যানের প্রতিনিধির ২০ ভাগ, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ১০ ভাগ করে কার্ড বরাদ্দের সিদ্ধান্ত হয়।

এর মধ্যে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ১০ ভাগ কার্ড নিয়ে দুই ইউপি সদস্য আলমগীর হোসেন বাবুল ও টেলু পাটওয়ারীর মধ্যে হাতাহাতি হয়। স্থানীয়রা জানান, এদের মধ্যে টেলু পাটওয়ারী বর্তমান এমপি ও আলমগীর হোসেন বাবুল উপজেলা চেয়ারম্যান গ্রুপের অনুসারী।

ঘটনার আগে দুই গ্রুপ প্রস্তুতি নিয়ে গোয়ালভাওর বাজারস্থ ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নেয়। এক পর্যায়ে উভয় গ্রুপের মধ্যে কথাকাটাকাটির জের ধরে হামলা-পাল্টা হামলা শুরু হয়। দফায় দফায় সংঘর্ষে উভয়পক্ষের অন্তত ১২ জন আহত হন।

এ ব্যাপারে ইউপি সদস্য ও আওয়ামী লীগের এক পক্ষের অনুসারী আলমগীর হোসেন বাবুল জানান, এমপি গ্রুপের লোকজন তাকে মারধর করে। তার বাড়িতে হামলা করে।আরেক ইউপি সদস্য টেলু পাটওয়ারী জানান, মঙ্গলবার তার উপর হামলার ঘটনায় বুধবার দুপুরে বিচার হওয়ার কথা ছিল। উভয়পক্ষ ইউনিয়ন পরিষদে অবস্থান নেয়। এরপর মারামারি শুরু হয়।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আ. হান্নান জানান, কার্ড নিয়ে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংর্ঘষ হয়েছে।ফরিদগঞ্জ থানার ওসি আব্দুর রকিব জানান, সংঘর্ষের সংবাদ পেয়ে পুলিশ ফোর্স সেখানে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।


  • 23
    Shares

এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button