আন্তর্জাতিক

করোনা প্রতিরোধে এবার ইনহেলার ট্রায়াল


নভেল করোনাভাইরাসের চিকিৎসায় ব্রিটেনের ইউনিভার্সিটি অব সাউদাম্পটনের বিজ্ঞানীরা ‘কভিড-১৯ ইনহেলার’ তৈরি করেছেন। উপসর্গ প্রকাশ পাওয়ার শুরুর দিকে এটি ব্যবহার করলে শরীরের রোগ প্রতিরোধক ব্যবস্থা (ইমিউন সিস্টেম) আরও ভালো কাজ করবে বলে আশা তাদের।

ডেইলি মেইল জানিয়েছে, মঙ্গলবার থেকে ব্রিটেনের ১২০টি বাড়ি এবং হাসপাতালে এই ইনহেলার সরবরাহ করা শুরু হয়েছে। রোগীরা পরীক্ষামূলকভাবে এটি ব্যবহার করবেন।যাদের উপসর্গ ৭২ ঘণ্টা আগে প্রকাশ পেয়েছে এই ট্রায়ালে তাদের ইনহেলারটি ব্যবহার করতে দেয়া হচ্ছে। গবেষকদের আশা, শ্বাসকষ্ট থেকে ইনহেলারটি মুক্তি দেবে।

যদি এটি ঠিকমতো কার্যকর হয় তাহলে ইনহেলার প্রস্ততকারক প্রতিষ্ঠান সিনায়ারগান বছরের শেষ নাগাদ কয়েক মিলিয়ন ডোজ তৈরি করবে।এর আগে গত জুলাইতে ১০০টি হাসপাতালে এই ইনহেলারের ট্রায়াল দেয়া হয়। সেখানে ফলাফল ইতিবাচক আসায় বাড়ির রোগীদের ট্রায়ালে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

গবেষক দলের প্রধান নিক ফ্রান্সিস বলছেন, ‘অসুস্থতার শুরুতে রোগীদের চিকিৎসা প্রয়োজন। দ্বিতীয় সপ্তাহে সাধারণত শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। এই ইনহেলার সেটা ঠেকাতে পারবে। বাড়ির চিকিৎসার পরিবেশ সম্পূর্ণ আলাদা হওয়ায়, আমরা নতুনভাবে ট্রায়াল শুরু করেছি।এই ইনহেলারে ‘এনজি০০১’ ড্রাগ কোড দেখা গেছে। এতে ‘ইন্টারফেরন বিটা’ নামের এক প্রকার প্রোটিন ব্যবহার করা হয়েছে।

ইন্টারফেরন বিটাকে মানুষের দেহে ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়ার জন্য প্রথম প্রতিরক্ষামূলক ব্যবস্থার অংশ বলা হয়। সংক্রমিত হওয়ার পর আমাদের শরীর এটি উৎপন্ন করে। এই প্রোটিন ইতিমধ্যে একটি ইনজেকশনে ব্যবহার করা হয়েছে।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, ইনহেলারের মাধ্যমে এটি নিলে সরাসরি ফুসফুসে চলে যাবে। তাতে ভালো ফল পাওয়া যাবে।বাড়িতে থাকা রোগীদের ভিডিওকলের মাধ্যমে চিকিৎসকেরা পরামর্শ দেবেন। হাসপাতাল থেকে তাদের দূরত্ব ৪০ মাইল।


এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

আরও পড়ুন
Close
Back to top button