দেশজুড়ে

কালবৈশাখী ঝড়ে লণ্ডভণ্ড ঠাকুরগাঁওয়ের ছয়টি গ্রাম


ফরিদুল ইসলাম রঞ্জু, ঠাকুরগাঁও:  ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ উপজেলার ছয়টি গ্রাম কালবৈশাখী ঝড়ে লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে। উপজেলার ভেমটিয়া, বিরহলী, ভেলাতৈড়, চাপোড়, মালঞ্চাসহ ছয়টি গ্রামে ভেঙে পড়েছে শত শত গাছপালা, বিধ্বস্ত হয়েছে অসংখ্য কাঁচা ও আধাপাকা বাড়িঘর। ক্ষতি হয়েছে বিস্তীর্ণ ফসলের মাঠ।

সোমবার (২৫ মে) ঈদুল ফিতরের ভোরে ওই ছয় গ্রামের ওপর দিয়ে কালবৈশাখী ঝড় বয়ে যাওয়ায় এ ঘটনা ঘটে।

গুয়াগাঁও মহল্লার রহিম জানান, রাতের বেলায় ঝড়ে গাছপালা ও ঘড়বাড়ি দুমড়ে-মুচড়ে গেছে। চাপোড় গ্রামের আলাউদ্দিন জানান, আম, লিচু, কাঁঠালসহ অসংখ্য বনজ গাছ উপড়ে পড়েছে এবং ডাল ভেঙে প্রায় ন্যাড়া হয়ে গেছে। এদিকে বোরো, ভুট্টা ও আখ ক্ষেতের আখ বাতাসে মাটিতে হেলে পড়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

এলাকাবাসী জানায়, ভোররাতে কয়েক মিনিটের ঝড়েই লণ্ডভণ্ড হয়ে যায় কয়েকটি গ্রাম। গাছ ভেঙে পড়ে বন্ধ হয়ে যায় রাস্তায় যান চলাচল। চাপা পড়েছে অনেক বাড়িঘর। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে আম, কাঠাল, লিচুসহ মৌসুমি ফলের বাগান। তছনছ হয়ে গেছে ভুট্টা,আখ ও পাকা ধান ক্ষেত। বাড়িঘর ভেঙে যাওয়ায় অনেকে খোলা আকাশের নিচে অবস্থান করছেন। বিদ্যুতের খুঁটি হেলে পড়ায় ঝড়ের সময় থেকে সোমবার দুপুর পর্যন্ত বিদ্যুৎ না থাকায় ঈদের দিন জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে।

পীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রেজাউল করিম ঝড়ে ক্ষতির কথা স্বীকার করে বলেন, ‘ভেঙে যাওয়া ঘর-বাড়ি নির্মাণ ও এই করোনাকালে ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে সাধ্যমতো দাঁড়াচ্ছে উপজেলা প্রশাসন।


এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button