দেশজুড়ে

নওয়াজের বিরুদ্ধে স্ত্রী আলিয়ার আরও দুই অভিযোগ


বলিউড অভিনেতা নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি ও তার পরিবারের প্রতি নানা অভিযোগ এনে কিছু দিন আগে তাকে তালাকের নোটিস পাঠিয়েছেন স্ত্রী আলিয়া সিদ্দিকি ওরফে অঞ্জনা কিশোর পাণ্ডে। এই জুটির ১১ বছরের সংসারে দুটি সন্তান রয়েছে। মেয়ে শোরা সিদ্দিকি এবং ছেলে ইয়ানি সিদ্দিকি। এই ছেলে-মেয়েদের সামনে রেখে এবার নওয়াজের বিরুদ্ধে নতুন অভিযোগের তুললেন স্ত্রী আলিয়া।

আলিয়া বলেন, ছেলে-মেয়েদের খেয়াল নওয়াজ কোনো দিনই রাখতো না। চার বছরেরও বেশি সময় ধরে আমরা আলাদা বাড়িতে থাকি। আমি তো দূরে, সন্তানদের দেখতে আসার কথা বললেও নওয়াজ নানা অজুহাতে এড়িয়ে যেত। বাচ্চাদের আমি কখনও কিছুই বলিনি। ওরা আমাকে বারবার একই প্রশ্ন করত, বাবা কোথায়? বাবার কোথায় শুটিং চলছে? আমি ওদের বলতাম, তোমাদের বাবা নিউ ইয়র্কে শুটিং করছেন। কিন্তু এই একই কথা কত বছর ধরে বলব?’

আলিয়া আরও বলেন, ‘নওয়াজ মুম্বাইতে ওর অফিসে থাকলেও সন্তানদের সঙ্গে দেখা করতে আসে না। আমি যখনই ওকে ফোন করে বলি, অন্ততপক্ষে একবার ছেলে-মেয়েদর সঙ্গে দেখা করে যাও। ওর সব সময় একই কথা, আমি ব্যস্ত আছি। অনেকের সঙ্গে মিটিং রয়েছে।’

অভিযোগের এখানেই শেষ নয়, অভিনেতা মনোজ বাজপায়ীর সামনে একদিন আলিয়াকে চূড়ান্ত অপমান করেছিলেন বলেও উল্লেখ করেন তিনি। আলিয়া বলেন, ‘অনেক সেলিব্রিটিই আমাদের বাড়িতে আসতেন। একদিন মনোজ ভাইয়ের সামনে আমাকে চূড়ান্ত অপদস্থ করেছিল নওয়াজ।। আমি ওদের জন্য রান্না করছিলাম। ঘরোয়া সেই আড্ডায় একটু কথা বলারও চেষ্টা করছিলাম। হঠাৎই নওয়াজ বলে ওঠে, ‘তুমি কথা বলতে জানো না। মানুষের সামনে কথা বলো না।’

গত ৭ মে নওয়াজকে ইমেইল এবং হোয়াটসঅ্যাপে তালাকের নোটিশ পাঠান আলিয়ার আইনজীবী। সেখানে মোটা অংকের টাকা খোরপোষ হিসেবেও দাবি করা হয়েছে। ১১ বছরের দাম্পত্য। ২০০৪ সাল থেকে দু’জনের সম্পর্ক। তখন আলিয়ার নাম ছিল অঞ্জনা কিশোর পাণ্ডে। ২০০৯ সালে বিয়ের পর নাম পাল্টে আলিয়া রাখেন।


এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button