সকাল ১০:৪৮ মঙ্গলবার ১৯শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং

কাশিয়ানীতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সংখ্যালঘু পরিবারকে মারপিট, আহত-৩

নিউজ ডেস্ক | তরঙ্গ নিউজ .কম
আপডেট : জুন ১৪, ২০১৭ , ৯:২৯ পূর্বাহ্ণ
ক্যাটাগরি : ঢাকা
পোস্টটি শেয়ার করুন

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী উপজেলার জোতকুড়া ঘোনাপাড়া গ্রামে গরুতে গাছ খাওয়াকে কেন্দ্র করে সংখ্যালঘু পরিবারকে মারপিট করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ৩ জন আহত হয়। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে। বর্তমানে ওই ৩ জন গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

ভুক্তভোগী পরিবার ও আহতদের সাথে কথা বলে জানা যায়, মঙ্গলবার সন্ধায় জোতকুড়া ঘোনাপাড়া গ্রামের বড়দেব মজুমদারের গরু পার্শ্ববর্তী ইউনুস মোল্লার বাগানে যেয়ে কয়েকটি গাছ খেয়ে ফেলে। এ সময় ইউনুস মোল্লা বড়দেব মজুমদারের স্ত্রী মিঠু মজুমদারকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে।

এ সময় বড়দেব মজুমদারের রনজিত মজুমদার (১৪) প্রতিবাদ করলে ইউনুস মজুমদারের নেতৃত্বে একই গ্রামের কামরুল মোল্লার ছেলে নাসিম মোল্লা, পাগল মোল্লার ছেলে শফিক মোল্লা, ফারুক মোল্লার ছেলে স¤্রাট মোল্লা, আবুল মোল্লার ছেলে শাহবুদ্দিন মোল্লা, আওলাদ মোল্লার ছেলে শিহাব মোল্লা বাশেঁর লাঠি, রড ও লাঠি নিয়ে বড়দেব মজুমদারের বাড়ীতে হামলা চালায়। তারা বড়দেব মজুমদারের স্ত্রী মিঠু মজুমদার (৩৫), বড়দেব মজুমদারের ছেলে রনজিত মজুমদার (১৪) ও নারায়ন মজুমদারের ছেলে নিউটন মজুমদারকে বেধড়ক মারপিট ও বাড়ী ঘর ভাংচুর করে। এ সময় স্থানীয়রা এগিয়ে এলে তারা চলে যায়।

এ ব্যাপারে আহত গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বড়দেব মজুমদারের স্ত্রী মিঠু মজুমদার সাংবাদিকদের জানায়, আমার একটি গরু ইউনুস মজুমদারের বাগানে গেলে সে আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে এ সময় আমার ছেলে প্রতিবাদ করলে তারা সবাই দল বেধে আমাকে আমার ছেলে রনজিত ও নিউটনকে মারপিট করে ও আমাদের বাড়ী-ঘর ভাংচুর করে। পরে স্থানীয়রা আমাদেরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসে।

তিনি আরো বলেন, আমরা হিন্দু মানুষ বলে কি আমাদেরকে এ ভাবে তারা মারবে আমরা কি কোন বিচার পাব না। নাকি আমরা ভারতে চলে যাব আপনারা বলেন।

এ ব্যাপারে ইউনুস মোল্লার সাথে বার বার যোগাযোগ করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মামলার প্রস্তুতি চলছিল বলে জানা যায়।

Comments

comments